নামাজে তাকবিরে তাহরিমা ও হাত বাঁধা


প্রকাশিত: ০৩:৪৯ এএম, ০৫ নভেম্বর ২০১৫

নামাজের মধ্যে রয়েছে ১৪টি ফরজ কাজ। নামাজ শুরুর পূর্বে ৭টি আর নামাজের ভিতরে রয়েছে ৭টি ফরজ কাজ। এ কাজগুলোর একটিও ছুটে গেলে নামাজ বিশুদ্ধ হবে না। যার প্রথমটি হচ্ছে তাকবিরে তাহরিমা। তাকবিরে তাহরিমার মর্মার্থ হচ্ছে- নামাজ আরম্ভ করার সময় আল্লাহ তাআলঅর মহত্ত্ব প্রকাশ পায় এমন কোনো শব্দ দ্বারা নামাজ শুরু করা ফরজ।

প্রথম তাকবিরকে ‘তাকবিরে তাহরিমা বলা হয় কেন?
এ তাকবিরের মাধ্যমে নামাজের বাইরের সব ধরনের কাজ-কর্ম নিষিদ্ধ হয়ে যায়। আল্লাহ তাআলা বলেন, وَرَبَّكَ فَكَبِّرْ অর্থাৎ তোমার প্রতিপালকের শ্রেষ্ঠত্ব ঘোষণা কর (সুরা মুদদাসসির : আয়াত ৩)

তাকবিরে তাহরিমায় হাত কতটুকু ওঠাতে হবে
তাকবিরে তাহরিমার সময় উভয় হাত কান বরাবর উঠানোর নিয়ম। রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকবিরে তাহরিমার সময় উভয় হাত কান বরারব উঠাতেন। যা অন্য কোনো তাকবিরে বক্ষের ওপরে উঠাতেন না।
হজরত বারা ইবনে আযিব হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন নামাজ শুরু করতেন, তখন তার উভয় হাতকে এমনভাবে উঁচু করতেন, যাতে তার বৃদ্ধাঙ্গুলিদ্বয় কর্ণদ্বয়ের সমান্তরাল থাকে। (মুসনাদে আহমদ, আবু দাউদ)

তাকবির পরবর্তী হাত বাঁধা
তাকবিরে তাহরিমার পর ডান হাত দিয়ে বাম হাতকে জড়িয়ে ধরা। হাদিসে এসেছে-
হজরত জাবির ইবনে আবদুল্লাহ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নামাজ আদায়রত জনৈক ব্যক্তির নিকট দিয়ে হেটে যাচ্ছিলেন, ঐ ব্যক্তি তার বাম হাত ডান হাতের ওপর রেখেছিল। তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর বাম হাতটি টেনে সরিয়ে দিলেন এবং ডান হাত বাম হাতের ওপর স্থাপন করলেন। (মুসলিম, মুসনাদে আহমদ)

হজরত কাবিসা ইবনে হুলব রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি তাঁর পিতা থেকে বর্ণনা করেছেন, তিনি বলেন, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদের নামাজের ইমামতি করতেন। তিনি তখন তার ডান হাত দ্বারা বাম হাতকে জড়িয়ে ধরতেন এবং তিনি তার নামাজ শেষে ডান ও বাম উভয় দিকে মুখ ফিরাতেন। (তিরমজি, মুসনাদে আহমদ, ইবনে মাজাহ)

সুতরাং নামাজের শুরুতে আমরা দুনিয়ার সব খেয়াল, ধ্যান-ধারণা থেকে মুক্ত হতে তাকবিরে তাহরিমা তথা আল্লাহু আকবার বলে নামাজ শুরু করার পাশাপাশি আমাদের ডান হাতকে বাম হাতের ওপর বাঁধব। আল্লাহ আমাদের নামাজের করণীয় কাজগুলো যথাযথ আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

জাগো ইসলামে লেখা পাঠাতে ই-মেইল : [email protected]

জাগোনিউজ২৪.কমের সঙ্গে থাকুন। কুরআন-হাদিস মোতাবেক আমলি জিন্দেগি যাপন করে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করুন। আমিন, ছুম্মা আমিন।

এমএমএস/পিআর