জন্মদিনের সেরা উপহার মাহমুদউল্লাহর

ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৬:১৫ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
জন্মদিনের সেরা উপহার মাহমুদউল্লাহর

এই টেস্টে তার নেতৃত্ব দেয়ার কথা ছিল না। টেস্ট ফরমেট থেকেই বাদ 'পড়ি-পড়ি' করছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার নেতৃত্বেই চট্টগ্রামে দাপুটে এক ড্র পেল বাংলাদেশ।

মুশফিকুর রহিমকে নেতৃত্ব সরিয়ে দেয়ার পর সাকিব আল হাসানকে টেস্টের নেতৃত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। বিস্ময় জাগিয়ে সহ-অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয় মাহমুদউল্লাহর নামটি।

জীবন আসলেই নাটকের চেয়েও নাটকীয়। টেস্ট ফরমেট থেকে বাদ পড়তে পারেন, এমন শঙ্কায় যখন দিন গুনছিলেন, তখনই অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পেয়ে গেলেন মাহমুদউল্লাহ; হঠাৎ সাকিব আল হাসান চোটে পড়ায়।

মাহমুদউল্লাহ আগেই জানিয়েছিলেন, এভাবে নেতৃত্ব পেতে চাননি তিনি। দলের সেরা তারকাকে হারিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ কতটা ভালো করতে পারবে, সেই শঙ্কাও ছিল।

নেতা হিসেবে মাহমুদউল্লাহর জন্য ছিল এটা বড় পরীক্ষা। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ৫১৩ রান করার পরও যে দল দারুণ চাপে ছিল এই টেস্টে। শ্রীলঙ্কা জবাবে করেছিল ৭১৩ রান, এগিয়ে ছিল ২০০ রানে। তবে এমন এক টেস্টেও পঞ্চম দিনে দাপট দেখিয়েছেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। ড্র করেছেন বুক ফুলিয়ে।

আজ আবার ছিল মাহমুদউল্লাহর জন্মদিন। টেস্টে নেতৃত্বের অভিষেকে গর্বের ড্র, জন্মদিনের সেরা উপহার কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ দলের এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান বলেন, 'যে রকম পরিস্থিতি থেকে আমরা ড্র পেয়েছি, অধিনায়ক হিসেবে সেখান থেকে ইতিবাচক ব্যাপারগুলোই নিতে চাই। পরবর্তী টেস্টে তা আমাদের কাজে দিবে। তবে জিততে পারলে ভালো লাগতো।'

ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে বোলাররা অনেক কষ্ট করেছে, মনে করছেন মাহমুদউল্লাহ। তবে দুই দলের ব্যাটসম্যানরাই ভালো করেছে বলে খারাপ লাগছে না তার, 'বোলারদের খুব কষ্ট হয়েছে। স্পিনাররা খুব কষ্ট করেছে। তাদের স্পিনাররাও। দুই দলের ব্যাটসম্যানরা ভালো করেছে। আমাদের সবার ব্যাটিংই ভালো হয়েছে।'

এমএমআর/আরআইপি