হেরাথ-পেরেরাকে কীভাবে সামলাবে বাংলাদেশ!

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১৬ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

মুত্তিয়া মুরালিধরনের ছেড়ে যাওয়া ব্যাটনটা আঁকড়ে ধরে রয়েছেন রঙ্গনা হেরাথ। যে কারণে, বর্তমান বিশ্বে স্পিনারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারী এখন এ লঙ্কান বাম হাতি স্লো অর্থোডক্স স্পিনার। শুধু বাংলাদেশ কেন, যে কোনো দলের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার টেস্ট খেলতে নামার অর্থই হলো তাদের প্রধান বোলিং অস্ত্র রঙ্গনা হেরাথ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে চলতি টেস্ট সিরিজেও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের প্রধান প্রতিপক্ষ এই হেরাথই। চট্টগ্রাম টেস্টে যেখানে বোলাররা একের পর এক খাবি খাচ্ছিল, তখন হেরাথ প্রথম ইনিংসে ৩টি এবং ২য় ইনিংসে নিয়েছেন ২টিসহ মোট ৫ উইকেট। এছাড়া হেরাথের সঙ্গে লঙ্কান স্পিন ব্যাটারিতে রয়েছেন দিলরুয়ান পেরেরা এবং লক্ষ্মণ সান্দাকান। এই স্পিনারই ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মূল প্রতিপক্ষ।

ম্যাচের আগেরদিন সংবাদ সম্মেলনে এসে লঙ্কান অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমালও জানিয়ে গেলেন, তার হাতে রয়েছে সবচেয়ে সেরা তিন অস্ত্র। এদের ওপর তিনি নির্ভর করতে পারেন। বিশেষ করে চায়নাম্যনখ্যাত লক্ষ্মণ সান্দাকান। কারণ, তাকে সঠিকভাবে খেলতে পারে না বাংলাদেশের ব্যাটসম্যাসরা।

চান্ডিমাল বলেন, ‘সান্দাকান হলেন আমাদের উইকেটনেয়া বোলার। যদি এটা ভালো উইকেট হয়, তাহলে রঙ্গনা এবং দিলরুয়ানই খেলাটার নিয়ন্ত্রণের কাজ করবেন। সান্দাকান হয়তো এই ভূমিকা নিতে পারবে না। আমি তাকে বোলিংয়ে নিয়ে আসবো কেবল, উইকেট নেয়ার জন্যই। এটাই হবে তার ভূমিকা। আমরা জানি, বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা তাকে ভালোভাবে খেলতে পারে না।’

লঙ্কান এই তিন স্পিনারকে সমীহ করছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। তার কাছে প্রশ্ন রাখা হয়, স্পিন ট্র্যাকে হেরাথ এবং পেরেরাকে কিভাবে সামলাবেন? জবাবে লঙ্কান এই স্পিনারদের সমীহ করলেও নিজেদের সামর্থ্যের ওপর আস্থা রাখলেন টাইগার অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, অবশ্যই তাদের প্রতি সম্মান রাখতে হয়। হেরাথ খুব অভিজ্ঞ, দিলরুয়ান খুব ভালো মানের বোলার। তাদের ওইরকম কোয়ালিটি আছে দেখেই ব্যাটসম্যানদের (ব্যাটিং পিচেও) ভোগান্তি দিতে পারে। কিন্তু আমার মনে হয় একইসঙ্গে আমাদের ব্যাটসম্যানরাও স্কিলফুল। দিনে দিনে আমাদের ব্যাটিং ইউনিট আরও ভালো হচ্ছে। সেদিক থেকে আমরা আত্মবিশ্বাসী। এখন দেখার বিষয় মাঠে কীভাবে প্রয়োগ করি আমাদের পরিকল্পনাগুলো।’

হেরাথকে নিয়ে আলাদা কোনো পরিকল্পনা আছে কি না বাংলাদেশের।? যেহেতু দুইদলেরই শক্তি স্পিন। সুতরাং, পরিকল্পনাটা কী। আর টেস্ট কয়দিনে যাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, ‘আমার পক্ষে এটা বলা কঠিন (হাসি)। উত্তর দিতে পারবেন পিচ কিউরেটর। যেটা বললেন, ঢাকা টেস্টে সব সময় রেজাল্ট দেখতে পারি, এটা ভালো। আপনি যদি চ্যালেঞ্জ নিতে পারেন, স্কিল কাজে লাগান আপনার দিকে রেজাল্ট যাবে। অনেকগুলো ভুল করেন বিপক্ষ দল এগিয়ে থাকবে। আর আমরা সব বোলারকে সমানভাবে দেখছি। কাউকে নিয়ে আলাদা কিছু না। হেরাথ অনেক অভিজ্ঞ, তার চ্যালেঞ্জ নিতে আমরা তৈরি।’

আইএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :