রোববার দুপুরেই দেশে ফিরছেন সাকিব

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:১২ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৮

মাঝে কিছু গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল। সাকিবের সুস্থ হতে নাকি বেশ সময় লাগবে। তার ‘বিশ্বকাপ অনিশ্চিত’- এমন খবরও চাউর হয়ে পড়েছিল; কিন্তু গত মঙ্গলবার রাতেই জানা হয়ে গেছে, সে সব শুধুই গুঞ্জন। ভিত্তিহীন খবরাখবর।

সাকিবের গুরু, মেন্টর ও অতি কাছের জন কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দীন গত ৮ অক্টোবর রাতেই জাগো নিউজকে জানিয়েছিলেন, সাকিবের বাঁ-হাতের কনিষ্ঠা আঙ্গুলের ইনফেকশন কেটে গেছে অনেকটাই। তার অবস্থা এখন ভালোর দিকে। তারপরও চিকিৎসকরা তাকে তিন দিনের পরিবর্তে এক সপ্তাহ ক্লিনিকে থাকতে বলেছেন। এক সপ্তাহ ক্লিনিকে অবস্থান শেষে সাকিব অনেকটা চাঙ্গা হয়ে সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই দেশে ফিরে আসবেন।

ওই খবরই সত্য হতে যাচ্ছে, সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামীকাল (রোববার) বেলা ১২টায় রাজধানীতে এসে পৌঁছাবেন সাকিব আল হাসান। বিসিবির নির্ভরযোগ্য একটি সুত্র জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে করে রোববার বেলা ১২টায় ঢাকায় এসে পৌঁছার কথা সাকিবের।

অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে অবস্থানরত সাকিবের সাথে কাল শুক্রবার শেষ কথা হয়েছে কোচ সালাউদ্দীনের। সে সূত্রে সালাউদ্দীন আজ সকালে জাগো নিউজকে জানান, ‘হাসপাতালে অবস্থানের সময় শেষ। সাকিব আজই দেশের উদ্দেশ্যে বিমানে চেপে বসার কথা। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামীকাল রোববারই তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।’

এটুকু বলার পর সালাউদ্দীন আর একটু লেজ জুড়ে দেন সঙ্গে, ‘ফ্লাইট সিডিউল চূড়ান্ত। শনিবার কোন এক সময় মেলবোর্ন ত্যাগ করার কথা সাকিবের। তবে দেশে ফেরার সময়টা আমি কনফার্ম না। হয় রোববার রাতে, না হয় সোমবার সকালে সে ঢাকায় আসতে পারে।’

দেশে থাকা তার মেন্টর, কোচ এবং শিক্ষাগুরু সালাউদ্দীন আহমেদের সাথে নিয়মিতই যোগাযোগ রেখেছেন সাকিব। জানিয়েছেন সর্বশেষ অবস্থা। জাগোনিউজকে সালাউদ্দীন বেশ আশাব্যঞ্জক তথ্যই দিয়েছেন। তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী, সাকিব তিন মাসের মধ্যে মাঠে ফিরতে পারবেন। প্রাথমিকভাবে শুক্রবারের টিকিট করা ছিলো সাকিবের। তবে ডাক্তারের পরামর্শে বাতিল করা হয়েছিল সে টিকিট। এখন ফেরার টিকিটের তারিখ পাল্টানো হয়েছে।

প্রসঙ্গতঃ মেলবোর্নে সাকিব ছিলেন তার কোচ সালাউদ্দীনের আপন বোনের স্বামীর তত্বাবধানে। সালাউদ্দীনের বোনও একজন চিকিৎসক।

গতকাল রাতেই দেশে ফেরার ইঙ্গিত দিয়ে নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে সাকিব পোস্ট দেন, ‘সমগ্র বাংলাদেশ এবং বিশ্বজুরে আমার এত অগনিত এবং দারুণ সব ভক্তদের পেয়ে আমি সত্যিই অভিভূত, আবেগ আপ্লুত এবং সম্মানিত বোধ করছি। আপনাদের এত এত ভালবাসা এবং প্রার্থনার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। ইন শা আল্লাহ আমি খুব শীঘ্রই মাঠে ফিরবো এবং সম্মানের সাথে প্রাণপ্রিয় দেশের প্রতিনিধিত্ব করবো। আমার পক্ষ থেকে সবার জন্য ভালবাসা রইলো।’

এআরবি/আইএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :