টেস্ট ব্যর্থতায় ঘরোয়া ক্রিকেটের দায় দেখছেন না মাহমুদউল্লাহ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৮ পিএম, ১০ নভেম্বর ২০১৮

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বেশ কয়েক বছর ধরেই দুর্দান্ত খেলছে বাংলাদেশ দল। সে তুলনায় সাদা পোশাকে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটে এখনো নিজেদের জাত চেনানোর অপেক্ষায় সদ্য ‘প্রাপ্তবয়ষ্ক’ হওয়া বাংলাদেশ। আজ থেকে ঠিক ১৮ বছর আগে ১০ নভেম্বর নিজেদের ইতিহাসের প্রথম টেস্ট খেলতে নামে টাইগাররা।

আঠারো বছরের যাত্রায় এখনো পর্যন্ত ১০৯ টেস্ট খেলা বাংলাদেশ দলের জয় মাত্র ১০টিতে। ড্র হয়েছে ১৬টি ম্যাচ, পরাজয় মিলেছে বাকি ৮৩টি ম্যাচেই। শতাংশের হিসেবে প্রায় ৭৫ শতাংশের বেশি ম্যাচেই হেরেছে বাংলাদেশ দল। টেস্ট ক্রিকেটে দলের ব্যর্থতার কথা এলেই প্রকট হয়ে সামনে আসে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের মান ও গ্রহণযোগ্যতা।

ম্যাড়ম্যাড়ে উইকেট, প্রতিযোগিতাহীনতা ও নির্বিষ বোলারদের কারণে জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল) বা বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) রান হয় ভুরিভুরি। প্রতি মৌসুম শেষেই সমালোচনা হয় দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের মান নিয়ে কিন্তু পরিবর্তন হয় অল্পই। বলা হয়ে থাকে, মূলতঃ দুর্বল ঘরোয়া সিস্টেমের কারণেই টেস্ট ক্রিকেটের টেম্পারমেন্ট ও ডিসিপ্লিন আয়ত্ত্ব করতে পারেন না ক্রিকেটাররা। যে কারণে অভিজাত ক্রিকেটে খুব একটা ভালো খেলতে পারে না বাংলাদেশ দল।

তবে বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মনে করেন, টেস্ট ক্রিকেটে ঠিকঠাক পেরে না ওঠার পেছনে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের কোনো দায় নেই। কারণ এনসিএল ব বিসিএলে নিয়মিতই রান করছেন ব্যাটসম্যানরা, উইকেট নিচ্ছেন বোলাররাও। যে কোনো পর্যায়ে পারফরম করতে পারাটাই বড় জিনিস বলে মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

সিলেটে প্রথম টেস্টে ভরাডুবি পারফরম্যান্সের পর ঢাকায় সিরিজের শেষ ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই বাংলাদেশের সামনে। শনিবার ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘জাতীয় লীগে ব্যাটসম্যানরা প্রায় সকলেই কম বেশি রান করছে, রান করে। বোলাররাও উইকেট পাচ্ছে নিয়মিত। এ থেকেই বোঝা যায় জাতীয় লিগে ভালোই ক্রিকেট হচ্ছে। আপনি যে কোনো জায়গাতেই খেলেন না কেন, যদি গলির ক্রিকেটেও সেঞ্চুরি করেন সেটাও কঠিন। এটি এত সহজ নয়। আপনি যেখানেই শতক কিংবা দ্বিশতক করেন, সেটা সহজ নয়।’

এসময় টেস্ট ক্রিকেটে ব্যর্থতার কারণ হিসেবে এই ফরম্যাটের ধাঁচ আয়ত্ত্ব করতে না পারাকেই দায়ী করেন মাহমুদউল্লাহ। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ধারাবাহিকতার বিকল্প নেই বলে মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

‘আমার মনে হয় না এখানে ঘরোয়া লিগের কোন অজুহাত দেয়ার সুযোগ আছে। আসলে যেটি বললাম যে টেস্ট ক্রিকেটের ধাঁচটি কখনো কখনো ধরতে পারি, আর যখন ধরি তখন অনেক ভালো খেলতে থাকি। যখন আবার এদিক সেদিক হয় তখন আবার আমরাও নিজেদেরকে গুটিয়ে ফেলি। এই বিষয়গুলোর সমাধানই খুঁজে বের করতে হবে। আর একটাই উত্তর, সেটি হল ধারাবাহিকতা। মানে ধারাবাহিকভাবে আমাদের পারফর্ম করতে হবে।’-মাহমুদউল্লাহর অনুধাবন।

এসএএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :