অফফর্ম নিয়ে চিন্তিত নন তামিম

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:০৩ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০১৯

দেশসেরা ওপেনার তিনি। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সেরও অন্যতম ব্যাটিং নির্ভরতা। কিন্তু তামিম ইকবাল তার নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না একেবারেই। এবারের বিপিএলে এখন পর্যন্ত তামিমের ব্যাট কথা বলেনি। যেখানে তার ব্যাট থেকে বিধ্বংসী আর লম্বা ইনিংস বেরিয়ে আসার কথা, সেখানে রীতিমত রানখরায় ভুগছেন সাফল্যের মানদন্ডে দেশের এক নাম্বার ব্যাটসম্যান।

পাঁচ ম্যাচের মধ্যে তিনটিতেই চরম ব্যর্থ তামিম। এর মধ্যে শেষ দুই ইনিংসে রানের খাতাই খোলা হয়নি, ফিরে গেছেন শূন্য রানে। তামিমের এমন অফফর্ম ভোগাচ্ছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে। শুরুটা প্রত্যাশামাফিক হচ্ছে না। উল্টো দুশ্চিন্তা পেয়ে বসেছে শিবিরে। সবার জানা, তামিমের জ্বলে উঠা মানেই শুরু ভালো হওয়া। কিন্তু তা আর হচ্ছে কই? কুমিল্লার ভক্ত সমর্থকরা চিন্তিত উদ্বিগ্ন।

তামিম অবশ্য এ নিয়ে খুব বেশি ভাবতে রাজি নন। মানছেন, 'আমার ব্যাটিং একদমই ভালো হচ্ছে না।' তবে এই ভালো না হওয়া তাকে আর যাই হোক চিন্তিত ও শঙ্কিত করেনি। আর তাই মুখে এমন কথা, 'রান না করলে আমি খুব একটা বেশি চিন্তিত হই না। কিন্তু আমি খুব ভালো অনুভব করছি না। তবে আপনাকে মেনে নিতে হবে, সবসময় সবকিছু আপনার পক্ষে যাবে না। আপনি সবসময় রান করতেই থাকবেন, যেটা আমি করে এসেছি গত কয়েক বছর ধরে। কিছু সময় আসবে যখন আমি রান পাবো না। এটা নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত না। আমি জানি কিভাবে এমন অবস্থা থেকে ফিরতে হয়।'

সিলেটে তামিম ইকবাল শূন্যতে আউট হয়েছিলেন এলবিডব্লিউয়ে। যান্ত্রিক ত্রুটিতে এদিন ডিআরএস না থাকায় কিছুটা রেগে গিয়েছিলেন এই ওপেনার। ড্রেসিংরুমে ফেরার আগে সিলেট অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে কিছুটা কথা কাটাকাটিও হয়।

আসলে কি ঘটেছিল? জানতে চাইলে তামিম বলেন, 'এমনি। তেমন কিছু না। খেলার মধ্যে অনেক কিছুই হয়। এইসব তেমন সিরিয়াস কিছু না।'

কাল রাতে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে ম্যাচে দুর্দান্ত বোলিং করেছেন তরুণ অফস্পিনার মেহেদী হাসান। এক ওভারে ডেভিড ওয়ার্নার, আন্দ্রে ফ্লেচার আর আফিফ হোসেন ধ্রুবকে আউট করাসহ ২২ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন তিনি। তামিম তো রীতিমত প্রশংসায় ভাসালেন খুলনার এই তরুণকে।

মেহেদীকে নিয়ে তামিম বলেন, 'ওর আত্মবিশ্বাস আমার কাছে সবচেয়ে ভালো লাগে। সে মনে করে সে যে কোনো ব্যাটসম্যানকেই আউট করতে পারবে। এটা বড় ব্যাপার তার জন্য। আর সে খুবই অ্যাকুরেট। খুব কম বাজে বল দেয় সে। সে এমন বোলার যার বিপক্ষে বাজে বলের অপেক্ষা না করে আপনাকে চান্স নিতে হবে। সে আপনাকে বাজে বল দিবে না।'

এআরবি/এমএমআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]