অবশ্যই প্রতিদান দেয়ার চেষ্টা করব : সাব্বির

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০০ পিএম, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভুল মানুষেরই হয়। সাব্বির রহমান অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে চান। বিতর্কিত কর্মকান্ডে ক্যারিয়ারটাই শেষ হতে বসেছিল। তবে বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে এবং ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার অনুরোধে দলে ফেরার একটা সুযোগ পেয়েছেন এই অলরাউন্ডার। এবার নিউজিল্যান্ড সফরে সেটার প্রতিদান দিতে চান তিনি।

দলের শৃঙ্খলাভঙ্গের মতো অপরাধ করে এর আগে কয়েকবার পার পেয়ে গেছেন সাব্বির। তবে এবার অনেকগুলো অপরাধকে একসঙ্গে আমলে নিয়ে তাকে ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ না ফুরোতেই আবারও দলে সাব্বির।

কিভাবে? আসলে, দলের স্বার্থ বিবেচনায় সাব্বিরের নিষেধাজ্ঞা এক মাস কমিয়ে আনা হয়েছে। তার পজিশনে বিকল্প খেলোয়াড় খুঁজেও পাওয়া যায়নি। এর মধ্যে চলে এসেছে বিশ্বকাপ। তার আগে তো তাকে ম্যাচ প্র্যাকটিসের সুযোগটা দিতে হবে! তাই নিষেধাজ্ঞা কমানোর সিদ্ধান্ত।

তবে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সেইসঙ্গে সতর্কও করে দিয়েছেন সাব্বিরকে। ভবিষ্যতে আবারও তেমন অপরাধ করলে আর মাফ করা হবে না, আজীবনের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মারকুটে এই অলরাউন্ডার নিজেও বুঝতে পারছেন, কোথা থেকে জীবন ফিরে পেয়েছেন। নিউজিল্যান্ডগামী বিমান ধরার আগে এয়ারপোর্টে এই ‘দ্বিতীয় সুযোগ’ নিয়ে কথাও বলেছেন সাব্বির। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই এটা আমার জন্য অনেক বড় সুযোগ। হতে পারে আমার সেকেন্ড চান্স। চেষ্টা করব আগের সাব্বির রূপে ফিরে আসার জন্য।’

দলে অপ্রত্যাশিতভাবে জায়গা করে নেয়া, এখন কি জবাব দেয়ার একটা তাড়না কাজ করবে মনে? সাব্বির অবশ্য ওভাবে ভাবছেন না। তার ভাষায়, ‘জবাব দেয়া বড় বিষয় না। আমি ভালো খেলার চেষ্টা করব।’

অতীতের কৃতকর্মের জন্য অনুশোচনা থাকলেও সেটা নিয়ে পড়ে থাকার পক্ষপাতী নন সাব্বির। যেহেতু সুযোগ পেয়েছেন, এবার প্রতিদান দিতে চান, ‘ওইসব নিয়ে চিন্তা করছি না। পাস্ট ইজ পাস্ট। ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা করছি। অবশ্যই প্রতিদান দেয়ার চেষ্টা থাকবে। দেখা যাক কি হয়।’

নিউজিল্যান্ডে এর আগে খেলার অভিজ্ঞতা আছে। সেটাই কাজে লাগাতে চান এই অলরাউন্ডার। এ সম্পর্কে তার ভাষ্য, ‘এর আগে দুইবার গিয়েছি নিউজিল্যান্ডে, অভিজ্ঞতা আছে। আবহাওয়া কেমন ধারণা আছে। আশা করি দ্রুত মানিয়ে নিতে পারব ও ভালো খেলার চেষ্টা করব।’

এমএমআর/এমকেএইচ