তাসকিন মনে করেন সামনে আরও সুযোগ আছে

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৩ পিএম, ১৬ এপ্রিল ২০১৯

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে সবচেয়ে বড় চমকের নাম ডানহাতি পেসার আবু জায়েদ রাহী। এখনো পর্যন্ত ওয়ানডে অভিষেক না হলেও বিশ্বকাপের দলে তাকে রেখেছে নির্বাচক কমিটি। রাহীকে স্কোয়াডে জায়গা করে দিতে বাদ পড়তে হয়েছে আরেক ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদকে।

অথচ ২৪ বছরের তাসকিন স্বপ্নের মতো কাটিয়েছিলেন বছরের শুরুতে হওয়া বিপিএল। আসরের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি সাকিব আল হাসানের চেয়ে ৩ ম্যাচ কম খেলেও পিছিয়ে ছিলেন মাত্র ১ উইকেটে। প্রায় প্রতি ম্যাচেই গুরুত্বপূর্ণ সব উইকেট শিকার করে ১২ ম্যাচে দখল করেছিলেন ২২টি উইকেট।

এমন পারফরম্যান্সের পর দীর্ঘ প্রায় দুই বছর পর নিউজিল্যান্ডগামী দলে ডাকও পেয়েছিলেন তাসকিন। কিন্তু বিপিএলে তার দল সিলেট সিক্সার্সের শেষ ম্যাচে পা ফসকালেন বাউন্ডারি রোপে, মচকে যায় গোড়ালি, ছিটকে যান মাঠ থেকে।

প্রায় দুই মাসের বেশি সময় মাঠের বাইরে থেকে গত বুধবার ফিরেছেন মাঠে। চলতি প্রিমিয়ার লিগের প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে খেলতে নেমে বোলিং করেছেন ৫ ওভার। দেখিয়েছেন নিজের সেরা ছন্দে ফেরার আভাস।

তবু বিশ্বকাপ স্কোয়াডে সুযোগ পাননি তাসকিন। এমনকি সুযোগ মেলেনি আয়ারল্যান্ডগামী ত্রিদেশীয় সিরিজের স্কোয়াডেও। বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণার সময় মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়াম প্রাঙ্গণেই ছিলেন তাসকিন। দলে নিজের নাম দেখতে না পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

তবে মুখে বলেন ভেঙে না পড়ার কথাই। উপস্থিত সাংবাদিকদের কান্নাভেজা চোখে তাসকিন বলেন, ‘সবাই তো ভালোই চায়, খারাপ চায় না কেউ। সামনে আরও সুযোগ আছে। আমি আমার চেষ্টা চালিয়ে যাবো। ডিপিএলের সুপার লিগে ভালো খেলার চেষ্টা করবো।’

বিশ্বকাপ স্কোয়াডে না হোক, অন্তত আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজে তো রাখা যেত তাকে?- এমন প্রশ্ন শুনে নিজেকে আর সামলে রাখতে পারেননি তাসকিন। ভারী গলায় বলেন, ‘সবাই যেটা ভালো মনে করছে তাই করছে। সবাই দোয়া করবেন, আমি চেষ্টা করবো ভালো করার’- এটুকু বলেই কান্নাভেজা চোখে সেখান থেকে চলে যান তাসকিন।

এসএএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :