পাকিস্তান ম্যাচকে চাপ মনে করেন না কোহলি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১১ পিএম, ১৬ জুন ২০১৯

ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো দ্বৈরথের মধ্যে একটি ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। যে কোনো আসরেই এই দুই দলের ম্যাচ থাকলে সেটা গুরুত্ব পায় বেশি। কেননা দর্শকরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন এই রোমাঞ্চকর লড়াই দেখার জন্য। গ্যালারিও থাকে কানায় কানায় পূর্ণ।

এই ম্যাচে মাঠের চাপ ছাড়াও সমর্থকদের থেকে একটু বাড়তি চাপ নিয়ে খেলতে হয় দুই দলের খেলোয়াড়দের। কেননা ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই তাদের কাছে অন্যকিছু। তবে এই চাপ নেয়ার কথা অস্বীকার করলেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তার মতে, ভালো খেললে যে কোনো দলকেই হারাতে পারেন তারা।

চাপ নেয়া প্রসঙ্গে কোহলি বলেন, ‘আমি এই ম্যাচকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছি না। ভালো খেললে আমরা যে কাউকেই হারাতে পারব। বিপক্ষ দল নিয়ে আলাদা কোনো কৌশল নেই। খেলোয়াড়দের জন্য যে কোনো দলের বিপক্ষে পেশাদারি হওয়াটা খুব জরুরী। একটা খেলা আমাদের জন্য আলাদা কিছু নয়। বিপক্ষ দলের কথা চিন্তা না করে সমানভাবে নিজেদের খেলাটাই আমাদের দায়িত্ব। আমরা যেভাবে ক্রিকেট খেলি তার জন্য আমরা বিশ্বে উঁচু পর্যায়ে আছি।’

দর্শকদের কাছে যে এই ভারত-পাকিস্তান লড়াইটা আলাদা সেটা মনে করেন কোহলিও। তবে খেলোয়াড়দের এই চিন্তা মাথায় না রাখতে বলেছেন তিনি।

কোহলি বলেন, ‘দর্শকদের চোখ দিয়ে দেখতে গেলে এই ম্যাচটা আলাদা। কিন্তু খেলোয়াড়দের মানসিকতা ঠিক রাখতে এবং পেশাদারি হতে হবে। দলের জয়ে সবারই অবদান রাখা জরুরি। আমরা সব খেলোয়াড়েরই শক্তিশালী দিকটা জানি। আমাদের বোলাররা খুব ফুরফুরে মেজাজে আছে। তারা সবাই খুব অভিজ্ঞ এবং গত দুই ম্যাচে খুব ভালো পারফরমেন্স করেছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে তাদের প্রস্তুতি নিয়ে আমি খুব একটা চিন্তিত নই।’

ভারত-পাকিস্তান লড়াই মানেই দর্শকদের সারাক্ষণ টিভির সামনে বসে থাকা এবং ম্যাচ শেষ হওয়া না পর্যন্ত চ্যানেল পরিবর্তন না করা। এতে করে টিআরপি (টেলিভিশন রেটিং পয়েন্ট) বেড়ে যায় ওই সম্প্রচারকারী চ্যানেলের। তার উপর মোহাম্মদ আমির এবং বিরাট কোহলির লড়াই তো আছেই। সব মিলে জমজমাট এক লড়াইয়ের অপেক্ষায় আছে ক্রিকেট ভক্তরা।

এই বিষয়ে কোহলি বলেন, ‘আমি এখানে টিআরপির জন্য আসিনি। আমার সামনে যেই আসুক না কেন আমি শুধু সাদা বলটাই দেখি। বোলারদের সঙ্গে আমার কোনো প্রতিযোগিতা নেই। আমি যদি রান করি তাহলে বাকি দশজনেরও পারফর্ম করা দরকার। ক্রিকেটার হিসেবে আপনি চিন্তা করবেন কিভাবে দলের জন্য অবদান রাখতে পারেন।’

এএইচএস/এমএমআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :