বিসিবির শর্টলিস্টে নেই হাথুরু, বাকিরা অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের!

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:২১ পিএম, ০৭ আগস্ট ২০১৯

বিসিবি পরিচালক এবং মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, এ মুহূর্তে বিসিবির শর্টলিস্টে আছেন তিনজন বিদেশি কোচ। প্রথমজন, মানে রাসেল ডোমিঙ্গো সবে কয়েক ঘণ্টা আগেই ইন্টারভিউ দিলেন। আরও দু’জন আসবেন ইন্টারভিউ নিতে। বোর্ড সভাপতি ও শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলবেন। নিজেদের উপস্থাপন করবেন। লক্ষ্য-পরিকল্পনা এবং কোচিং প্রোগ্রাম নিয়ে বিষদ আলাপ-আলোচনা করবেন। তারপর চূড়ান্ত হবে টাইগারদের প্রধান কোচ।’

বিসিবির কোচ চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দেয়ার জবাবে এই পদে আবেদন করেছিলেন আরও কয়েকজন। তবে জালাল ইউনুস পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন, তাদের সবাইকে সাক্ষাৎকার ও প্রেজেন্টেশনের জন্য ডাকা হচ্ছে না।

তার এ কথাই প্রমাণ, ‘আমাদের হাতে তিনজনের বেশি ছিল। সবাই তো আর যোগ্য নয়। কয়েকটি দেশের কোচ, যারা দেশের বাইরে কোচিং করিয়েছে, তারাও কিন্তু আবেদন করেছে। বাট আমরা মনে করি না তারা বাংলাদেশের জন্য যোগ্য। আমরা তাই তিনজনকে বেছে নিয়েছি। এই তিনজনের বাইরে আর কাউকে দেখছি না।’

বিসিবির অন্যতম সিনিয়র পরিচালক ও কোচ নিয়োগ প্রক্রিয়ার সাথে সম্পৃক্ত জালাল ইউনুসের এমন বক্তব্যের পর কয়েকটি প্রশ্ন আপনা আপনি উঠে গেছে।

১. তাহলে বাকি দুজন কারা?
২. ওই তালিকায় কি চন্ডিকা হাথুরুসিংহে আছেন? ঈদের আগে যে দু’জন ইন্টারভিউ দিতে আসার কথা, সেখানে কি হাথুরুও থাকবেন?
৩. শেষ পর্যন্ত পছন্দের শর্টলিস্টের বাইরে থেকে কাউকে আবার পছন্দ করা হবে না তো?

আজ সন্ধ্যার পর থেকে এসব প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে অনেকের মনেই। এ প্রশ্নের জট খোলেনি।

জালাল ইউনুস অবশ্য জোর দিয়েই বলেছেন, ‘এই শর্ট লিস্টের বাইরে থেকে আর কারো নতুন কোচ হবার সম্ভাবনা নেই। তালিকার বাইরে থেকে কাউকে না, আমরা বলেছি সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা আরো দু’জন আছে। সেই দু’জন আসবে সাক্ষাৎকার দিতে। এই তিন জনের ভেতর থেকে কাউকে নিব। আমরা ১০-১২ দিনের মধ্যে কোচ নিয়োগ নিশ্চিত করতে পারব।’

এদিকে জালাল ইউনুস অনেক কথার ভিড়েও আকার ইঙ্গিতেও একবার চন্ডিকা হাথুরুসিংহে সম্পর্কে একটি কথাও বলেননি। এমন একটি শব্দও তার মুখ থেকে বের হয়নি, যার মাঝে হাথুরুর ব্যাপারে এতটুকু আভাস ইঙ্গিত ছিল।

তবে যাকেই নেয়া হোক তিনি অভিজ্ঞ, পরিণত এবং কোন জাতীয় দলের সাবেক কোচ ছিলেন, তেমন কাউকে বেছে নেয়ার কথাও বলেছেন জালাল।

তিনি বলেন, ‘জাতীয় দলের অভিজ্ঞতাকে অবশ্যই গুরুত্ব দেয়া হবে। দেখেন আজকে যার সাক্ষাৎকার নিয়েছি তার জাতীয় দলে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা আছে। বাকিদেরও আছে। এর বাইরে আমরা কাউকে যোগ্য মনে করি না।’

এটুকু শুনে কেউ কেউ হয়ত হাথুরুর কথা ভাবতে শুরু করে দিয়েছেন। মনে করছেন, হাথুরু তো এখন আর শ্রীলঙ্কার কোচ নেই। পদচ্যুত। তার সাথে তো কথাও হয়েছিল বোর্ডের। বোর্ড নাকি তাকে প্রস্তাবও দিয়েছিল। কাজেই তার সম্ভাবনাও নিশ্চয়ই আছে।

নাহ, সে সম্ভাবনা খুব কম। বোর্ড পরিচালকদের কেউ এ সম্পর্কে মুখে তালা দিয়ে থাকলেও একদম উচ্চ পর্যায়ের ঘনিষ্ঠ সুত্রের খবর, বিসিবির পছন্দের তিন জনের সংক্ষিপ্ত কোচের তালিকায় বাকি দুজনার মধ্যে নাম নেই হাথুরুর।

বলেই দেয়া যায়, হাথুরু বাংলাদেশের কোচ হচ্ছেন না। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে, হাথুরু কেন, উপমহাদেশের কোন কোচই নেই। এমনকি ইংল্যান্ডের কেউ নেই ওই শর্টলিস্টে। বাকি দুজনার একজন অস্ট্রেলিয়ান আর অন্য জন নিউজিল্যান্ড না হয় দক্ষিণ আফ্রিকার।

তার মানে আগে পরে যতই গুঞ্জন শোনা যাক হাথুরু উপাখ্যান মোটামুটি শেষ। তার আর বাংলাদেশ কোচ হবার সম্ভাবনা শূন্যতে গিয়ে ঠেকেছে। যেহেতু সামনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়ায়। তাই অস্ট্রেলিয়ার কারো হবার সম্ভাবনাও বেশি বলে শোনা যাচ্ছে।

এআরবি/আইএইচএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]