২ কোটি টাকা নয়, কারগিল যুদ্ধকে বেছে নেন শোয়েব

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৫০ পিএম, ০২ আগস্ট ২০২০

নিত্য নতুন অবাক করা সব মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে পরিণত হওয়া একপ্রকার অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক গতিতারকা শোয়েব আখতার। সে ধারাবাহিকতা চলছে এখনও। এবার তিনি মন্তব্য করেছেন ১৯৯৯ সালে হওয়া কারগিল যুদ্ধের ব্যাপারে।

শোয়েব আখতারের দাবি ১৯৯৯ সালে কারগিল যুদ্ধ চলার সময় তার কাছে ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেট খেলার প্রস্তাব এসেছিল। তাও যেনতেন পারিশ্রমিক নয়, তখনকার সময়ে পৌনে ২ লাখ পাউন্ডের (বাংলাদেশি মুদ্রায় ২ কোটি টাকার বেশি) বিনিময়ে নটিংহ্যামশায়ারে খেলার প্রস্তাব পেয়েছিলেন শোয়েব।

কিন্তু তখন কারগিল যুদ্ধের সংকেত পাওয়ায়, সেই প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছিলেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসখ্যাত এই পেসার। প্রায় ২১ বছর আগে মে থেকে জুলাই পর্যন্ত ভারত ও পাকিস্তানের সেনাদের মধ্যে হয়েছিল কারগিল যুদ্ধ। উভয়পক্ষই একশর বেশি সেনাসদস্যকে হারায় সেই যুদ্ধে।

প্রায় ২১ বছর পর শোয়েব জানালেন, তিনি সবকিছু ছেড়েছুড়ে দেশের জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত ছিলেন তখন। পাকিস্তানি টিভি চ্যানেল আরি নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এই অজানা কথাটি সবাইকে জানিয়েছেন শোয়েব।

তিনি বলেন, ‘খুব কম মানুষই এই ঘটনাটি জানে। নটিংহ্যামের সঙ্গে আমার পৌনে ২ লাখ পাউন্ডের চুক্তি ছিল। পরে ২০০২ সালেও আমার একটি বড় চুক্তি ছিল। কিন্তু কারগিল হওয়ার সময় আমি দুটিই নাকচ করে দেই।’

শোয়েব আরও বলেন, ‘আমি লাহোরের উপকণ্ঠে ছিলাম তখন। এক জেনারেল আমাকে জিজ্ঞেস করেছিল যে, ওখানে কী করছি আমি? উত্তরে বলেছিলাম, যুদ্ধ শুরু হতে চলেছে। আমরা একসঙ্গেই শহীদ হবো। আমি এ কারণে দুইবার কাউন্টি ক্রিকেট ছেড়েছি এবং কাউন্টির ওরা সবাই হতবাক হয়ে গেছিল। এটি নিয়ে আমার চিন্তা ছিল না। আমি কাশ্মীরে আমার বন্ধুদের জানাই যে, লড়তে প্রস্তুত আছি।’

‘যখন ভারতীয় বিমানগুলো আসল এবং আমাদের অনেকগুলো গাছ নষ্ট করেছিল, তা আমাদের জন্য অনেক বড় ক্ষতি ছিল। যে কারণে এখন আমরা গাছের বিষয়ে আগের চেয়ে সচেতন। আমি এটায় কষ্ট পেয়েছিলাম। আমার তখন খুবই খারাপ লাগছিল। পরেরদিন আমি খবরে দেখলাম যে এটা চলমান আছে। এরপর দিন ভেতরের খবর সব পাই। কারণ আমি রাওয়ালপিন্ডির এবং হেড কোয়ার্টারে আমার চেনা আছে।’

এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]