বাবল ভেঙে বড় শাস্তি পেলেন তিন লঙ্কান তারকা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০১ এএম, ৩১ জুলাই ২০২১

এই তো গত মে মাসে বাংলাদেশ সফরের ওয়ানডে দলে শ্রীলঙ্কার সহ-অধিনায়ক ছিলেন কুশল মেন্ডিস। অথচ মাস দুয়েকের মধ্যেই তিনি এখন জাতীয় দলের নিষিদ্ধ ক্রিকেটার। সঙ্গে গুনতে হচ্ছে বড় অঙ্কের জরিমানাও।

শুধু কুশল মেন্ডিস একা নন, ইংল্যান্ড সফরে গিয়ে বায়ো সিকিউর বাবল (জৈব সুরক্ষা বলয়) ভাঙার অপরাধে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে দানুশকা গুনাথিলাকা এবং নিরোশান ডিকভেলাও। পাশাপাশি তিনজনকে করা হয়েছে ১ কোটি রুপি জরিমানা।

এই শাস্তির আওতায় আগামী ৬ মাস ঘরোয়া ক্রিকেটেও খেলতে পারবেন না এ তিন লঙ্কান তারকা। যার মানে দাঁড়ায় চলতি বছর আর কোনো ক্রিকেটই খেলতে পারবেন না তারা। এর সঙ্গে আরও দুই বছর শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের কড়া নজরদারিতে রাখা হবে তাদের।

সুপ্রিম কোর্টের জজ নিমল দিশানায়কের তত্ত্বাবধানে করা পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে গুনাথিলাকা ও মেন্ডিসকে ২ বছর এবং ডিকভেলাকে ১৮ মাসের জন্য নিষিদ্ধের সুপারিশ করা হয়েছিল। তবে অতটা কঠিন হয়নি লঙ্কান বোর্ড।

এর আগে দুইবার নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন গুনাথিলাকা, গত বছর একজন পথচারীর মৃত্যুর কারণ ছিলেন মেন্ডিস। তবু তাদের সমান শাস্তিই দেয়া হয়েছে ডিকভেলাকে। যার কি না এর আগে কোনো অনিয়মের রেকর্ড ছিল না। এখন তিনজনকেই পেতে হচ্ছে সমান শাস্তি।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জুন ডারহামে শ্রীলঙ্কার টিম হোটেল ছেড়ে বাইরে ঘুরতে বেরিয়ে পড়েছিলেন গুনাথিলাকা, মেন্ডিস ও ডিকভেলা। তাদের বাইরে হাঁটাচলার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে এটি নিয়ে বিপাকেই পড়তে হয় লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডকে।

এসএএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]