মেয়েদের নতুন টুর্নামেন্টে অধিনায়ক মৌসুমী

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৫৩ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

অধিনায়ক মানেই নামের আগে একটা পদবী যোগ হওয়া নয়, এটা একজন খেলোয়াড়ের বাড়তি দায়িত্বও। মিশরাত জাহান মৌসুমী প্রথমবারের মতো এ দায়িত্ব পেয়ে সেটাই বললেন। সিনিয়র সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ, অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ- দক্ষিণ এশিয়ার নারী ফুটবলে এ দুটি টুর্নামেন্টের সঙ্গে যোগ হয়েছে আরো একটি। এই প্রথমবারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ। যে টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেবে মিশরাত জাহান মৌসুমী।

রংপুরের মৌসুমী খেলেন সেন্ট্রাল মিডফিল্ডে। এই প্রথম দায়িত্ব পেয়েছে অধিনায়কের। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক হিসেবে তার নাম ঘোষণা করেছেন মেয়েদের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তার সহকারী অনূর্ধ্ব-১৬ দলের অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা।

মৌসুমী মাঝমাঠের কূশলী ফুটবলার। প্রথমবারের মতো মাঠের নেতৃত্ব পাওয়াটাকে চাপই মনে করছেন মৌসুমী। ‘আমি সবসময় ফ্রিভাবে মাঠে খেলি। চেষ্টা করি ভালো খেলার। এবার আমার দায়িত্ব অধিনায়কত্ব করা। একটু চাপ থাকাটাই স্বাভাবিক। নিজেকে ভালো খেলতে হবে। অন্যদের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। পুরো দলটি নিয়েই আমাকে ভাবতে হবে। এটাতো একটা বাড়তি দায়িত্ব। তবে আমি চেষ্টা করবো কোচ যে আস্থা নিয়ে আমাকে এত বড় দায়িত্ব দিয়েছেন তা সঠিকভাবে পালন করতে’-বলছিলেন অনূর্ধ্ব-১৮ নারী ফুটবল দলের অধিনায়ক।

২৮ সেপ্টেম্বর ভুটানের রাজধানী থিম্পুতে শুরু হবে দক্ষিণ এশিয়ার এই নতুন টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ খেলবে ‘বি’ গ্রুপে পাকিস্তান ও নেপালের সঙ্গে। ‘এ’ গ্রুপের তিন দল ভারত, মালদ্বীপ ও ভুটান। শ্রীলংকা এ টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে। বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ৩০ সেপ্টেম্বর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। ২ অক্টোবর দ্বিতীয় ম্যাচের প্রতিপক্ষ নেপাল।

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারীদের যে চ্যাম্পিয়নশিপ চলছে ঢাকায় সেই দলের ১৩ জনই আছেন অনূর্ধ্ব-১৮ দলে। ১০ জন আছেন পুরোনো যারা আগে অনূর্ধ্ব-১৬ দলে ছিলেন। এ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের প্রত্যাশা ও সম্ভাবনা সম্পর্কে কোচ বলেছেন,‘প্রথম টুর্নামেন্ট। আমরা ফাইনাল খেলে টুর্নামেন্টটিকে স্মরণীয় করে রাখতে চাই।’

অধিনায়ক মিশরাত জাহান মৌসুমী ফাইনালে চোখ রেখেই নতুন দায়িত্ব শুরু করতে যাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমরা কঠোর পরিশ্রম করে আসছি। দলটি অনূর্ধ্ব-১৫, অনূর্ধ্ব-১৬ ও তাদের সিনিয়রদে নিয়ে গড়া হয়েছে। তবে আমরা এক সঙ্গেই আছি অনেকদিন। ভালো খেলতে পারবো বলে আত্মবিশ্বাস আছে। ইনশাল্লাহ ফাইনালও খেলবো।’

বাংলাদেশ দল
মাহমুদা আক্তার, রূপনা চাকমা, রুকসানা বেগম, মসুরা পারভীন, শিউলি আজিম, আঁখি খাতুন, সাজেদা খাতুন, শামসুন্নাহার, আনাই মগিনি, নাজমা বেগম, রিতু পর্না চাকমা, নিলুফা ইয়াসমিন নিলা, মারিয়া মান্ডা, মিশরতা জাহান মৌসুমী, ইশরাত জাহান রত্না, মনিকা চাকমা, মারজিয়া, সানজিদা আক্তার, তহুরা খাতুন, সিরাত জাহান স্বপ্না, কৃষ্ণা রানী সরকার, রাজিয়া খাতুন ও অনুচিং মগিনি।

আরআই/আইএইচএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :