মুজিববর্ষে ঢাকায় পর্তুগাল-ইতালি ম্যাচ নিয়ে ধোঁয়াশা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:২০ পিএম, ২১ মে ২০১৯

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে খেলাধুলা নিয়ে যে আয়োজনগুলো থাকছে, তার মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয় হতে পারে ইউরোপের দুটি দেশ নিয়ে ঢাকায় একটি প্রীতি ম্যাচ। যদিও এ আয়োজনটি বাফুফে তাদের পরিকল্পনার মধ্যে চূড়ান্ত করেনি। কারণ, ইউরোপের কোন দুটি দেশকে এই প্রীতি ম্যাচের জন্য আনা হবে, তা নির্ভর করছে ওই দুই দলের সিডিউলের উপর। পাঁচটি দেশকে টার্গেট করে পেপারওয়ার্ক শুরু করেছে বাফুফে।

বাফুফে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে তাদের যে কর্মসূচি ঠিক করেছে তার মধ্যে প্রধান আয়োজন হচ্ছে বঙ্গবন্ধু নামে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ, বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ, বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট এবং দেশের সব জেলা নিয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ। এই চারটি টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য বাফুফে সরকারের কাছে বাজেট পেশ করেছে ৬৮ কোটি টাকা। এর বাইরে যদি ইউরোপের দুটি দেশ এনে প্রীতি ম্যাচ আয়োজন করতে পারে বাফুফে, তার খরচ হবে আলাদা।

সোমবার সেগুনবাগিচার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে ক্রীড়া ও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজন উপ-কমিটির সভায় বাফুফে তাদের পরিকল্পনাগুলো তুলে ধরে। সেখানে বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন দুটি ইউরোপের দল এনে একটি প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের চেষ্টার কথাও জানান।

বাফুফে ৫ টি দেশকে টার্গেট করেছে। ফ্রান্স, ইতালি, জার্মানি, পর্তুগাল ও ইংল্যান্ডের যে কোনো দুটি দেশকে ঢাকায় আনার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে দেশের ফুটবলের অভিভাবক সংস্থাটি। এ দেশগুলোর জাতীয় দল না হলেও সেরা দুটি ক্লাব এনেও একটি ম্যাচ খেলানোর পরিকল্পনা আছে বাফুফের।

সোমবারের সভার পর চারিদিকে খবর ছড়িয়ে পড়েছে, ইতালি ও পর্তুগালই হতে যাচ্ছে সেই প্রীতি ম্যাচের দল। পর্তুগাল মানেই সবচেয়ে বড় তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তবে বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ মঙ্গলবার জাগো নিউজকে বলেছেন, ‘আমরা ওই ৫ টি দেশের যে কোনো দুটিকে আনার লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছি। এখনো নিশ্চিত নয়, কাদের পাবো। এই ৫ দেশের জাতীয় দল না পেলেও দুটি দেশের সেরা দুটি ক্লাব এনে আমরা প্রীতি ম্যাচ আয়োজন করবো।’

আরআই/এমএমআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :