আমি অপমানিত হয়েছি : খোলা চিঠিতে বিস্ফোরক জিদান

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪৩ পিএম, ৩১ মে ২০২১

রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে তার প্রায় ২০ বছরের সম্পর্ক। একটা সময় খেলোয়াড় ছিলেন, পরে কোচ হিসেবে দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছেন। সেই ‘ঘরের ছেলে’কেই এবার রিয়াল ছাড়তে হলো একবুক কষ্ট নিয়ে।

কদিন আগেই রিয়াল মাদ্রিদের কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন জিদান। আগের মেয়াদে দুই হাত ভরা সাফল্য পেলেও এবার অনেকটা খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে এই ফরাসিকে।

পদত্যাগের সময় মুখ খুলে কিছু না বললেও কষ্টটা আর গোপন রাখতে পারলেন না জিদান। অবশেষে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’কে এক চিঠির মাধ্যমে রিয়াল ছাড়ার কারণগুলো জানিয়েছেন এই ফরাসি কিংবদন্তি।

খোলা চিঠিতে জিদান লিখেছেন, ‘এখন আমি চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং আমি এর কারণ ব্যাখ্যা করতে চাই। আমি যাচ্ছি, কিন্তু হুট করে যাইনি এবং আমি অনুশীলনের জন্য ক্লান্ত নই। আড়াই বছর কোচিংয়ে অনেক শিরোপা আর জয়ের পর ২০১৮ সালে মে মাসে আমি বিদায় নিয়েছিলাম। তখন অনুভব করেছিলাম, শীর্ষ পর্যায়ে থাকতে দলের নতুন দিক নির্দেশনার প্রয়োজন।’

তিনি আরও লেখেন, ‘আজ প্রেক্ষাপট ভিন্ন। আমি চলে যাচ্ছি কারণ, অনুভব করেছি ক্লাব থেকে যে আত্মবিশ্বাস প্রয়োজন, সেটা পাচ্ছি না। মাঝারি কিংবা দীর্ঘ মেয়াদে কোনো সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করতে যা প্রয়োজন, তোমন কোনো সমর্থন আমি পাইনি। ফুটবল কী আমি জানি। রিয়াল মাদ্রিদের মতো ক্লাবের চাহিদাও জানি। জানি, কিছু না জিততে পারলে চলে যেতে হবে। কিন্তু এখানে খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপার সবাই ভুলে গেছে।’

‘দিনে দিনে আমি যা গড়ে তুলেছি, দলের আশেপাশে থাকা দেড়শ জনকে নিয়ে খেলোয়াড়দের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে আমি যে ভূমিকা রেখেছি, এর সবকিছু ভুলে যাওয়া হচ্ছে। আমি আজন্ম বিজয়ী, এখানে এসেছিলাম ট্রফি জিততে। কিন্তু এসবকে ছাড়িয়ে আমি মানুষ। আমারও আবেগ, জীবন আছে। আমি অনুভব করেছি, এই ব্যাপারগুলোর মূল্যায়ন করা হয়নি। অসাধারণ একটি ক্লাবের এগিয়ে যাওয়ায় এই ব্যাপারগুলো ভূমিকা রাখে, সেটা অনেকেই বুঝতে পারেনি। এমনকি একভাবে আমি অপমানিতই হয়েছি।’

‘আমরা এক সঙ্গে যা করেছি সেগুলোকে আমি সম্মান জানাতে চাই। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ক্লাব ও প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আমার সম্পর্ক অন্য কোচদের চেয়ে কিছুটা আলাদা হলে ভালো লাগতো। আমি কোনো সুবিধা চাইনি, অবশ্যই না। স্রেফ চেয়েছিলাম একটু অতীতটা মনে থাকুক।’

পদত্যাগের জন্য সাংবাদিকদের দোষ দিয়ে জিদান লিখেছেন, ‘কয়েকটা ম্যাচ খারাপ করলেই সংবাদমাধ্যমগুলো আমার সম্ভাব্য ছাঁটাই নিয়ে যা যা লিখতো, তা পড়া খুবই কষ্টকর ছিল। সামনের একটা ম্যাচ হারলে আমি ছাঁটাই হয়ে যাব, এমন একটা খবর ছড়িয়ে পড়ায় আমি আর আমার স্কোয়াডের খেলোয়াড়- সবার মনেই আঘাত লেগেছিল। তার মানে, এই খবর ক্লাবের কেউই সংবাদমাধ্যমের কাছে ফাঁস করেছে। যার কারণে ক্লাবের সবার মধ্যে ভুল-বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে।’

জিদান আরও বলেন, ‘সাংবাদিকদের উদ্দেশে কিছু বলতে চাই। আমি শতাধিক সংবাদ সম্মেলন করেছি, কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত আমরা ফুটবল নিয়ে তেমন কথা বলিনি। আমি আপনাদের কিছু শেখাতে চাই না, কিন্তু সব সময় বিতর্কিত বিষয় নিয়ে যদি প্রশ্ন না করতেন, তাহলে ভালো হতো।’

চিঠির মাঝে আরও অনেক বিষয় তুলে ধরেন জিদান। তবে শেষে নিজের প্রিয় ক্লাবের উন্নতির কামনা করে চিঠিটি শেষ করেছেন জিদান। তিনি লিখেছেন, ‘প্রিয় মাদ্রিদিস্তা, আমি সবসময় আপনাদের একজন হয়ে থাকব। এগিয়ে যাও মাদ্রিদ।’

এমএমআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]