মাশরাফি-মামুনুলরা যুব গেমসের শুভেচ্ছাদূত

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৩৫ এএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ) আয়োজিত প্রথম বাংলাদেশ যুব গেমেসের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে থাকছেন জাতীয় ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ও জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক মামুনুল ইসলামসহ ২৩ ক্রীড়াবিদ।

সোমবার দেশের ৬৪ জেলায় একযোগে শুরু হচ্ছে যুবাদের নিয়ে দেশের সবচেয়ে বড় এই গেমস। গেমসের প্রথম আসরে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে ২১ ডিসিপ্লিন। আয়োজক বিওএর দেয়া তথ্য অনুযায়ী ২৩ হাজারের বেশি ক্রীড়াবিদ অংশ নিচ্ছে এই গেমসে। রোববার ৫০ জেলায় মশাল প্রজ্জ্বলের মাধ্যমে গেমসের সূচনা হয়েছে।

গেমস উপলক্ষ্যে রোববার বিওএর অডিটরিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা, সহসভাপতি শেখ বশির আহমেদ, উপ-মহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করেন।

সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেছেন,‘বৃহত্তর এ গেমসের মাধ্যমে দেশের যুব সমাজকে এক সূতোয় গাঁথা সম্ভব হবে বলে আমরা মনে করি। এ গেমসের জন্য দেশের ২০ ক্রীড়া ব্যক্তিত্বকে (যদিও এ সংখ্যা ২৩) শুভেচ্ছাদূত হিসেবে মনোনীত করেছি। আপনাদেরকে দেয়া তালিকার বাইরে উল্লেখযোগ্য আছেন ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তার সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। তার আগেই তিনি আমাদের এই গেমসের ইতিবাচক দিক নিয়ে মিডিয়ায় বক্তব্য দিয়েছেন। আশা করি, তিনিও গেমসের সঙ্গে শুভেচ্ছাদূত হিসেবে থাকবেন। এ ছাড়া আছেন জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম। আছেন স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের অধিনায়ক জাকারিয়া পিন্টু, গত এসএ গেমসে স্বর্ণজয়ী সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলা ও ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্তসহ সহ বিভিন্ন খেলার কৃতি ক্রীড়াবিদরা।’

গেমস শুরু হবে উপজেলা পর্যায় থেকে। পর্যায়ক্রমে খেলা হবে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে। তারপর ঢাকায় চূড়ান্ত পর্বের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এই গেমসের জন্য ১৫ কোটি টাকা বাজেট করেছে বিওএ।

মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেছেন,‘আমরা ৮০ ভাগ অর্থ ছাড় দিয়েছি গেমসের জন্য। বাকি ২০ ভাগ খরচের অবস্থা দেখে ছাড় দেয়া হবে। পুরো টাকাটাই ব্যবস্থা করা হচ্ছে পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে।’

যুব গেমসের শুভেচ্ছাদূত যারা

চট্টগ্রাম বিভাগ : ফুটবলার মামুনুল ইসলাম, সাবেক শ্যুটার আতিকুর রহমান, সাবরিনা সুলতানা।

রাজশাহী বিভাগ : স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সদস্য ফজলে সাদাঈন খোকন, সাবেক ক্রিকেট ও ভলিবল খেলোয়াড় পান্না ঘোষ।

ঢাকা বিভাগ : নারী ভারোত্তালক মাবিয়া আক্তার সীমান্ত, সাবেক ফুটবলার ইমতিয়াজ সুলতান জনি, সাবেক জুডো তারকা কামরুন নাহার হিরু, গ্র্যান্ডমাস্টার নিয়াজ মোরশেদ, জাতীয় হকি দলের অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমি।

খুলনা বিভাগ : সাবেক ফুটবলার শেখ মোহাম্মদ আসলাম, সাবেক টেবিল টেনিস খেলোয়াড় জোবেরা রহমান লিনু, সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলা, ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা।

রংপুর বিভাগ : সাবেক অ্যাথলেট শামীমা সাত্তার মিমু, সাবেক কাবাডি খেলোয়াড় আবদুল জলিল।

বরিশাল বিভাগ : স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের অধিনায়ক জাকারিয়া পিন্টু, সাবেক সাঁতারু জতীন দাস, সাবেক ফুটবলার শওকত হোসেন নিলু।

ময়মনসিংহ বিভাগ : সাবেক ক্রিকেটার সাইফুল ইসলাম, সাবেক ফুটবলার আমিন রানা।

সিলেট বিভাগ : সাবেক হকি খেলোয়াড় রঞ্জিত দাস, সাবেক ফুটবলার মোক্তার হোসেন।

আরআই/এমএমআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :