শেরপুরের সর্বত্র চলছে ক্রিকেটার জ্যোতি বন্দনা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি শেরপুর
প্রকাশিত: ০৬:৩৪ পিএম, ১৩ জুন ২০১৮

শেরপুরে এখন সর্বত্র চলছে জ্যোতি বন্দনা। এশিয়া কাপ জয়ী বাংলাদেশ জাতীয় প্রমিলা ক্রিকেট দলের সদস্য নিগার সুলতানা জ্যোতিকে বুধবার শেরপুরে নাগরিক সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে এ নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শেরপুর-১ আসনের এমপি জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, পৌর মেয়রসহ শেরপুরের বিশিষ্ট নাগরিকরা উপস্থিত থেকে জ্যোতিকে সম্মাননা জানান।

বুধবার রাজধানী ঢাকা থেকে সড়কপথে শেরপুর শহরের রাজবল্লভপুর মহল্লার নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে চ্যাম্পিয়ন ক্রিকেটার জ্যোতির গাড়িটিকে শেরপুর শহরের প্রবেশমুখে ভাতশালা ইউনিয়নের কানাশাখেলা মোড়ে ব্যান্ডপার্টিসহ শতাধিক মোটরসাইকেলবহর তাকে স্বাগত জানায়। পরে ব্যান্ডপার্টিসহ মোটরসাইকেল শোভাযাত্রাসহকারে জ্যোতিকে সংবর্ধনাস্থল শহরের চকবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে নেয়া হয়।

সেখানে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করা হয় ক্রিকেটার জ্যোতিকে। অতিথিরা এবং বিশিষ্ট নাগরিকরা তাকে অভ্যর্থনা জানান। পরে শেরপুর পৌরসভা, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থা, ডিএফএ, ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যাসোসিয়েশন, জেলা ছাত্রলীগ, হোটেল আহার, জেলা চালকল মালিক সমিতি, অনন্যা বুটিক হাউস, কাকলি সমিতি, খেলাঘর, মহিলা পরিষদ ছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা, সংগঠন ও ব্যক্তির পক্ষ থেকে ক্রেস্ট, সম্মাননা স্মারক এবং উপহার তুলে দেয়া হয়।

এ সময় জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক নারী ক্রিকেটে অসামান্য অবদানের জন্য জ্যোতিকে এক লাখ টাকা পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দেন।

জ্যোতি

অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- জেলা প্রশাসক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেন, পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, জাতীয় প্রমিলা ক্রিকেট দলের সদস্য নিগার সুলতানা জ্যোতি ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র আতিকুর রহমান মিতুল ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজিমুল হক নাজিম প্রমুখ। সংবর্ধনার জবাবে আগামীতে আরও ভালো কিছু করার জন্য সবার দোয়া চান ক্রিকেটার জ্যোতি।

বাংলাদেশ জাতীয় প্রমীলা ক্রিকেট দলের নির্ভরযোগ্য সদস্য শেরপুরের মেয়ে নিগার সুলতানা জ্যোতি শহরের ১নং ওয়ার্ডের রাজবল্লভপুর মহল্লার সিরাজুল হক ও সালমা হক দম্পতির মেয়ে।

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশকে চ্যাম্পিয়ন করার অন্যতম কারিগর এই উইকেটরক্ষক ও ব্যাটসম্যান। গত ১০ জুন মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেটের ফাইনাল খেলায় শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে জ্যোতি ২৪ বলে দলের পক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২৭ রান করেন। তার এই দ্রুতগতির রানই জয়ের ভীত গড়ে দেয়।

পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে টি-২০ এবং অক্টোবরে ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল জ্যোতির। তারপর থেকেই বাংলাদেশ জাতীয় প্রমীলা ক্রিকেট দলের একজন নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড়ে পরিণত হয় জ্যোতি। ২০১৬ সালে আইসিসি জ্যোতিকে উদীয়মান সেরা ৫ নারী ক্রিকেটারের একজন বলে স্বীকৃতি দিয়েছিল।

হাকিম বাবুল/এএম/পিআর