বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের ভাতা প্রদান শুরু

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:১৯ পিএম, ১২ আগস্ট ২০২০

মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই বলে আসছিলেন, ‘বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভাতা প্রদানের প্রচলন থাকলেও ক্রীড়াঙ্গনে নেই। আমরা বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে দেশব্যাপী অস্বচ্ছল ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের ভাতা প্রদান করব।’

প্রতিশ্রুত সেই ভাতা প্রদানের কাজ বুধবার থেকে শুরু করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। ২০১৯-২০ অর্থবছরে ১১৫০ জন ক্রীড়াসেবীকে ২ কোটি ৭৬ লক্ষ টাকা মাসিক ভাতা হিসেবে প্রদান করা হচ্ছে। তার অংশ হিসেবে প্রথম দিন এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ঢাকা জেলার ৮৫ জন অস্বচ্ছল, আহত, অসমর্থ ক্রীড়াসেবীদের হাতে তুলে দিয়েছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

চেক বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশন জাতির পিতার স্মৃতি বিজড়িত একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান। সৃষ্টিলগ্ন থেকেই এ প্রতিষ্ঠান জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ক্রীড়াসেবীদের কল্যাণে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। ক্রীড়া, খেলাধুলা ও শরীরচর্চায় অবদান রাখাদের বা তাদের পরিবারের সদস্যদের কল্যাণের জন্য ভাতা প্রদানের মাধ্যমে ফাউন্ডেশনের ক্রীড়ার মান উন্নয়নে উৎসাহ প্রদান করে আসছে।’

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই আমরা আমাদের অসহায় ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংগঠকদের আর্থিকভাবে সহায়তা করে আসছি। প্রথম দফায় আমরা ১ হাজার ক্রীড়াবিদকে এক কোটি টাকা প্রদান করি। পরবর্তীতে আমরা আরও ৩ কোটি টাকা দেশের তৃণমূল পর্যায়ের প্রায় চার হাজারের অধিক অসহায়, দুঃস্থ ক্রীড়াবিদ, ক্রীড়া সংগঠক ও ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের মাঝে বিতরণ করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘সম্প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। এজন্য আমরা তার কাছে কৃতজ্ঞ। আমরা ঐ টাকা স্থায়ী আমানত হিসেবে রেখে তার লভ্যাংশ হতে খেলোয়াড় বা ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতা করব।’

আরআই/এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]