ক্রেডিট কার্ডের খরচ কমাবেন যেভাবে

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৯ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

একবিংশ শতাব্দীতে এসে যখন মানুষ প্রযুক্তি নির্ভর। সেখানে ক্রেডিট ব্যবহার নতুন কিছু নয়। এখন সব ব্যাংকই গ্রাহকদের ক্রেডিট কার্ডের সুবিধা দিচ্ছে। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার যেমন সুবিধার তেমনি কিছু অসুবিধাও আছে। আবার নানান কারণে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার নিয়ে মানুষের মনেও দ্বিধার শেষ নেই।

তবে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের কিছু কৌশল অবলম্বন করতে পারেন। এতে খুব সহজেই এর বাড়তি খরচ এড়িয়ে চলতে পারবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেসব-

> ক্রেডিট কার্ডের খরচ কমানোর সেরা উপায় হলো ক্রেডিট কার্ডের সেরা অফারসমূহের সঠিক ব্যবহার করা। শুনে মনে হতে পারে এসব অফার ব্যবহার আরও খরচ ভারী করে। ফলে এতে খরচ কিছুটা হলেও কমে।

দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন পেমেন্ট বা কেনাকাটার ক্ষেত্রে ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহারে ডিসকাউন্ট বা ক্যাশব্যাক পাওয়া যায়। অনেক ক্রেডিট কার্ড দ্বারা বছরে একটি নির্দিষ্ট এমাউন্ট/POS লেনদেন করলে বার্ষিক ফি মওকুফ হয়ে যায়। ফলে আপনার কার্ডের বার্ষিক ফি প্রদান করতে হচ্ছেনা। আবার অনেক শপে ক্রেডিট কার্ডের জন্য বিশেষ ডিসকাউন্ট থাকে। এই অফারগুলোর সঠিক ব্যবহার করুন।

> ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে অনাকাঙ্ক্ষিত জরিমানা বা সুদ এড়াতে অটোডেবিট ফিচার চালু করে রাখুন। ক্রেডিট কার্ডের বিল দেওয়ার জন্য ব্যাংক একাউন্টের সঙ্গে কার্ডের অটোডেবিট ফিচার চালু করে রাখতে পারেন। ফলে মাস শেষে আপনার কার্ডের বিল নিজে নিজেই ব্যাংক একাউন্ট থেকে কেটে নেবে। এতে করে আপনার কার্ডের বিল দেওয়া ভুলে যাবেন না এবং জরিমানা ও সুদ এড়াতে পারবেন।

> অনেক সময় ক্রেডিট কার্ড সেবাদাতা ব্যাংক আপনাকে সাপ্লিমেন্টারী কার্ডের অফার করতে পারে। সাপ্লিমেন্টারী কার্ড হচ্ছে আপনার আত্নীয় বা প্রিয়জনের জন্য একটি কার্ড নিন। যার বিল আবার দিতে হবে আপনাকেই। তাই বাড়তি খরচ এড়াতে চাইলে এসব সাপ্লিমেন্টারী কার্ড থেকে দূরে থাকুন।

> ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের খরচ কমানোর আরেকটি উপায় হচ্ছে কার্ডের বাড়তি ফিচার বন্ধ রাখা। যেমন- ইনস্যুরেন্স বন্ধ করে রাখলে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের খরচ অনেকাংশে কমে যায়। যেহেতু কিছু কিছু ক্রেডিট কার্ডের ইনস্যুরেন্স প্রতি মাসে আপনার ক্রেডিট কার্ডের বিলের উপর একটা পার্সেন্টিজ চার্জ করে। তাই খরচও বেড়ে যায় অনেক।

> ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রে রিওয়ার্ড পয়েন্টের পেছনে দৌড়ানোর কারণে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের খরচ বেড়ে যায়। বাড়তি খরচের জন্য লোভ দেখানো এই রিওয়ার্ড পয়েন্টের ফাঁদে না পড়াই উত্তম। দিনশেষে দেখা যায় রিওয়ার্ড পয়েন্ট থেকে পাওয়া লাভের চেয়ে খরচের পরিমাণ বেশি পড়ে যায়।

> যত বোনাস দেওয়া হোক না কেনো, সম্ভব হলে একাধিক ক্রেডিট কার্ড এর জন্য সাইন-আপ করা এড়িয়ে চলুন। এছাড়াও ক্রেডিট কার্ড ম্যানেজমেন্ট নিয়ে আপনার যথেষ্ট জ্ঞান না থাকলে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে লাভ থেকে ক্ষতি বেশি হবে। তাই গিফট বা রিওয়ার্ড এর নামে বাড়তি খরচ থেকে দূরে থাকুন।

> সঞ্চয়ের টাকা আলাদা রাখার মাধ্যমে ক্রেডিট কার্ডের খরচ কমাতে পারেন। আপনার সব সঞ্চয় যদি ক্রেডিট কার্ডের সঙ্গে যুক্ত অ্যাকাউন্টে থাকে, সেক্ষেত্রে খরচের প্রবণতা বেড়ে যেতে পারে। তাই সঞ্চয়ের টাকা আলাদা অ্যাকাউন্টে বা স্কিমে সুরক্ষিত রাখাই শ্রেয়।

>ক্যাশ টাকা ব্যবহার আপনার খরচ কমাবে অনেক বেশি। ক্রেডিট কার্ডে থাকা অর্থ কিন্তু এক ধরনের ভার্চুয়াল কারেন্সি, তাই এটি ব্যবহারে বাস্তব অর্থ খরচের ব্যাপারটি উপলব্ধি করা যায়না। তাই সরাসরি ক্যাশ টাকা ব্যবহার করে কেনাকাটা করে বাড়তি খরচ থেকে দূরে থাকা যায়।

কেএসকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]