গুগল ফটোসে ভিডিও এডিট করবেন যেভাবে

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২০ এএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২২

 

একবিংশ শতাব্দীতে এসে সবার হাতে হাতেই স্মার্টফোন। শুধু দূর দুরান্তে যোগাযোগ করা কিংবা ছবি তোলাই নয়। আরও নানান কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে স্মার্টফোন। কোথাও বেড়াতে গেছেন আর হাতেও যদি থাকে একটি স্মার্টফোন, ছবি তোলার পাশাপাশি ভিডিও করে রাখেন স্মৃতি হিসেবে।

তবে এখানেই শেষ নয়, যারা কন্টেন্ট ক্রিয়েটর আছেন তাদের বেশিরভাগের শুরুটা স্মার্টফোন দিয়েই। কিন্তু এই ভিডিও এডিট করতেই বাঁধে যত বিপত্তি। নানান ধরনেই থার্ড পার্টি অ্যাপের সাহায্য নিতে হয়। তবে খুব সহজেই কিন্তু আপনার স্মার্টফোন থেকেই কাজটি করে নিতে পারেন।

গুগলের জনপ্রিয় অ্যাপ গুগল ফটোস (Google Photos) থেকে ভিডিও এডিট করা সম্ভব। এর ফলে সাধারণ ছোটখাটো ভিডিও এডিটিংয়ের জন্য আর ভারি ভারি অ্যাপ ইনস্টল করতে হবে না। প্রয়োজন হবে না কোনো পেইড সাবস্ক্রিপশনেরও। গুগল ফটোস এর মাধ্যমে কয়েকটি সহজ ধাপে দ্রুত ভিডিও এডিট করা যাবে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে গুগল ফটোস থেকে ভিডিও এডিট করবেন-
> এখন সব অ্যান্ড্রয়েড ফোনেই অ্যাপটি ইনস্টল করা থাকে। তবে আপনার ফোনে গুগল ফটোস না থাকলে প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপ ইনস্টল করে নিন।
> এবার অ্যাপটি ওপেন করে যে ভিডিও এডিট করতে চান তা সিলেক্ট করে নিন।
> ভিডিও প্রিভিউ ওপেন করার পরে তা প্লে করে নীচে এডিট বাটনে ট্যাপ করুন। এর পরে স্ক্রিনে এডিট ইন্টারফেস ওপেন হবে।
> সেখানে বিভিন্ন বেসিক ভিডিও এডিটিংয়ের অপশন দেখতে পাবেন। থাকছে অডিও মিউট, স্টেবিলাইজেশন, স্কিন টোন অ্যাডজাস্টমেন্ট সহ আরও অনেক অপশন। ইন্টারফেসে মোট পাঁচটি ট্যাব থাকবে। এই ট্যাবগুলো হল Video, Crop, Adjust, Filters, Markup। প্রত্যেকটি ট্যাবে ট্যাপ করে ফিচারগুলো দেখে নেওয়া যাবে।
> Video ট্যাবের অধীনে যে কোনো ভিডিও থেকে শব্দ বন্ধ করে নেওয়া যাবে। এ ছাড়াও থাকছে স্টেবিলাইজেশনের অপশন।
> ভিডিওতে যুক্ত করা যাবে ফ্রেম।
> Crop ট্যাবে রয়েছে ভিডিও ম্যানুয়ালি ক্রপ করার সুযোগ। এ ছাড়াও এখানেই ভিডিও রোটেট করতে পারবেন।
> Adjust ট্যাবে বিভিন্ন স্লাইডারের মাধ্যমে ভিডিওটি কেমন দেখতে হবে তাও নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।
> এখানে ব্রাইটনেস, কনট্রাস্ট, হোয়াইট পয়েন্ট, হাইলাইটস, শ্যাডো ব্ল্যাক পয়েন্ট স্যাচুরেশন ওয়ার্মথ, টিন্ট, স্কিন টোন, ব্লু টোন ও ভিনিয়েট নিয়ন্ত্রণ করার সুযোগ থাকছে। এই সব স্লাইডার নাড়িয়ে ভিডিওতে পছন্দের লুক পেয়ে যাবেন।
> Filter ট্যাবে বিভিন্ন প্রিসেট ফিল্টার ব্যবহার করা যাবে। Vivid, West, Bazaar, Metro-র মতো ফিল্টার ব্যবহার করে ভিডিওতে সম্পূর্ণ আলাদা লুক দিতে পারবেন।
> Markup ট্যাবে পেন অথবা হাইলাইটার টুল সিলেক্ট করা যাবে। এর পরে ভিডিও মার্ক করা যাবে।
> আপনার প্রয়োজনীয় সব এডিটিং শেষ হলে Save Copy সিলেক্ট করে অরিজিনাল ফাইলের পাশাপাশি পৃথক ফাইল তৈরি করে নিতে পারবেন।

কেএসকে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]