দক্ষিণ কোরিয়ায় বিপাশা হায়াতের চিত্র প্রদর্শনী

০৭:৪০ এএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার

নন্দিত অভিনেত্রী বিপাশা হায়াত। অভিনয়ে এখন তিনি অনিয়মিত। মাঝেমধ্যে দেখা মিলে তার চিত্রনাট্যকার হিসেবে। তবে চারুকলার ছাত্রী বিপাশা সাম্প্রতিক সময়ে নিয়মিতই...

সারা দেশের সিনেমা হলে বিনামূল্যে চলবে মুক্তিযুদ্ধের ছবি

১০:০৫ এএম, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার

‘জয়যাত্রা’ ২০০৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি বাংলাদেশি চলচ্চিত্র। বাংলাদেশের বিখ্যাত সম্পাদক, কাহিনীকার ও চলচ্চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেনের কাহিনী নিয়ে সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন তৌকীর আহমেদ।

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে বিচারক বিপাশা

১০:৩৫ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার

বেশ ঘটা করেই শুরু হতে যাচ্ছে ১৬তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। উৎসবের ‘নারী চলচ্চিত্র নির্মাতা’ বিভাগে বিচারক হিসেবে থাকছেন নন্দিত অভিনেত্রী বিপাশা হায়াত...

মালয়েশিয়ায় নাতনিকে নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটলেন আবুল হায়াত

০৭:১৯ এএম, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার

১৯৪৪ সালের ৭ সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদে জন্মগ্রহন করেন তিনি।[৩] আবুল হায়াতের বাবা আব্দুস সালাম ছিলেন চট্টগ্রাম রেলওয়ে ওয়াজিউল্লাহ ইন্সটিটিউটের সাধারন সম্পাদক। স্কুল জীবন কাটে চট্টগ্রাম কলেজিয়েট ও রেলওয়ে উচ্চ বিদ্যালয়ে।

আনন্দ ভ্রমণে এক ফ্রেমে হায়াত পরিবার

০৫:২০ এএম, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার

সেখানে দুই কন্যা ও দুই জামাতা ছাড়াও আবুল হায়াতের সঙ্গী তার স্ত্রী শিরিন হায়াত, , শাহেদ-নাতাশার মেয়ে ও ছেলে, তৌকীর-বিপাশার ছেলে। কোরবানি ঈদের ছুটিতে সবাই মিলে বেড়াতে গেছেন মালয়েশিয়ায়।

কেয়ামত থেকে কেয়ামতের প্রস্তাব পেয়েছিলেন বিপাশা-তৌকীর

১১:৫৯ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৭, রোববার

বিপাশা হায়াত-তৌকীর আহমেদের কাছেও গিয়েছিল এই ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব। তবে নিজেদের মূলধারার বাণিজ্যিক ছবিতে দেখতে চান না বলে দুজনই এ ছবির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন।

বিপাশার লেখা নাটকে নোবেল-মম

০৬:৪৫ এএম, ১৩ আগস্ট ২০১৭, রোববার

‘ছায়া’ নাটকের শুটিং শুরু হয়েছে ১১ আগস্ট শুক্রবার। চিত্রনাট্যকার বিপাশা হায়াত বলেন, ‘এই নাটকে আমি ক্যামেরার পেছনে কাজ করেছি, তানিয়া আহমেদ ক্যামেরা নিয়ে কাজ করছেন আর নোবেল অভিনয় করেছেন। খুবই ইন্টারেস্টিং বিষয়।’

প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিপাশা হায়াতের আহ্বান

০৯:০৪ এএম, ৩০ জুলাই ২০১৭, রোববার

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিপাশা আহ্বান করেন, ‌‘যদি সম্ভব হয় পথশিশুদের জন্য, শিশুশ্রম পুরোপুরি বন্ধের জন্য কঠোর পদক্ষেপ নিন। আমি যখন রাস্তায় বেরিয়ে শিশুদের ফুল বিক্রি করতে দেখি, গাড়ির গ্লাস মুছতে দেখি তখন আমার সন্তানদের দিকে তাকাই।