মানবতার সেবায় এগিয়ে চলা এক তরুণের গল্প

রাকিব খান
রাকিব খান রাকিব খান
প্রকাশিত: ০৮:১৭ এএম, ১৩ আগস্ট ২০২০

করোনায় বিপর্যস্ত পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশও এর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পায়নি। আবার এর মধ্যে দেশের বন্যা পরিস্থিতিও লাগামহীন। তবুও থেমে নেই জীবন। এমন পরিস্থিতিতেও কিছু মানুষ অসহায় মানুষের জন্য নিরলসভাবে নিভৃতে কাজ করে যাচ্ছে। ঠিক তেমনই একজন মো. আশিক ইকবাল। গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার দোলুয়া মসজিদ পাড়ায়। পড়াশোনা করছেন রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যানিমেল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদে। পাশাপাশি তিনি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ক্রীড়া সম্পাদক।

jagonews24

চলতি বছরের মার্চে দেশে করোনা সংক্রমণের প্রমাণ পাওয়ার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এ সময় গ্রামের বাড়িতে চলে আসেন আশিক। চিন্তা করেন এলাকার মানুষের জন্য কিছু করবেন। যেই ভাবা সেই কাজ।

jagonews24

পরদিন মানুষদের সচেতন করার জন্য মাইকিং শুরু করেন। নিজের হাতে তেমন টাকা-পয়সা ছিল না। তাই কিছুটা সাময়িক অসুবিধার মধ্যে পড়তে হয় তাকে। অবশেষে তার পরিবার, কিছু নিকট আত্মীয়সহ ভেড়ামারা উপজেলার ইউএনও সোহেল মারুফ, শেকৃবি ছাত্রলীগ, স্থানীয় দোলুয়া যুব সংঘ ক্লাব, জনতা যুব সংঘ তার কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়। এবার গ্রামের একঝাঁক তরুণদের নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন মানবতার কাজে।

jagonews24

নতুন উদ্যমে চলতে থাকে মানবসেবা কার্যক্রম। বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে পৌঁছে দেয়া হয় ত্রাণসামগ্রী।

jagonews24

নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করে আশিক বলেন, ‘সবসময়ই মানুষের জন্য কল্যাণকর কিছু কাজ করতে ইচ্ছে করে। এখন সেই সুযোগ পেয়েছি। চেষ্টা করছি কিছু করার। মানুষের জন্য যেন আরও কিছু করতে পারি সেজন্য আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতা চাই। আশা করি, খুব শিগগিরই এই দুর্যোগ কেটে যাবে। আবার পৃথিবী স্বাভাবিক হবে।’

মো. রাকিব খান/এসআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]