বশেমুরবিপ্রবির প্রক্টরের বিরুদ্ধে ১৭ সহকারী প্রক্টরের অনাস্থা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গোপালগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৪:৩১ পিএম, ০৭ মে ২০২১

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) প্রক্টর ড. রাজিউর রহমানের প্রতি অনাস্থা জানিয়েছেন ১৭ সহকারী প্রক্টর।

বৃহস্পতিবার (৬ এপ্রিল) প্রক্টর ড. রাজিউর রহমানের প্রতি অনাস্থা জানিয়েয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ সহকারী প্রক্টরের মধ্যে ১৭ জন উপাচার্যের কাছে লিখিতভাবে অনাস্থার কথা জানান।

বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন উপাচার্য প্রফেসর ড. এ কিউ এম মাহবুব। তিনি বলেন, অভিযোগ হাতে পেয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

অভিযোগকারীরা জানান, প্রক্টর ড. রাজিউর রহমানের পদ অবৈধ। শুধু তিনি নয় চলতি দায়িত্বে থাকা উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. শাহাজাহানের সময় নিয়োগ পাওয়া সহকারী প্রক্টর পদও অবৈধ।

লিখিত অভিযোগে জানানো হয়, প্রফেসর ড. মো. শাহাজাহান উপাচার্য (চলতি দায়িত্বে) থাকাকালীন সময়ে তিনি প্রক্টর পদে নিয়োগ পান। যা চলতি দায়িত্বে থাকা উপাচার্যের ক্ষমতার বাহিরে।

অভিযোগপত্রে আরও উল্লেখ করা হয়, চলতি দায়িত্বে থাকাকালীন একজন স্থায়ী উপাচার্যের গাড়ি, অফিস ব্যবহারসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা নিতে পারবেন না। কিন্তু প্রফেসর ড. মো. শাহাজাহান সেগুলো অবৈধভাবে ব্যবহার করেছেন।

অনাস্থার কারণ জানতে চাইলে নাম না প্রকাশের শর্তে এক সহকারী প্রক্টর বলেন, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘটে যাওয়া কয়েকটি বিষয়ে সহকারী প্রক্টরকে অবহিত না করা এবং সমন্বয়হীনতার ফলে এ অনাস্থা তৈরি হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রক্টর ড. রাজিউর রহমান জাগো নিউজকে জানান, ‘এখনো অফিশিয়ালি কোনো কাগজ পাইনি। কেন আমার বিরুদ্ধে এমন করা হয়েছে কাগজপত্র হাতে পাওয়ার পর তা জানাতে পারবো।’

এএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]