৭ মার্চের ভাষণ মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র হিসেবে কাজ করেছে

উপজেলা প্রতিনিধি কালীগঞ্জ (গাজীপুর)
প্রকাশিত: ১০:২০ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ১০:২৬ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় সোহরাওয়ার্দী উদ্যোনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেয়া ঐতিহাসিক ভাষণ দেশের প্রতিটি মানুষকে আলোড়িত করেছিল। আর সেই ভাষণই পরবর্তীতে মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র হিসেবে কাজ করেছে।

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি অর্জন করায় শনিবার বেলা ১১টায় গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত আনন্দ শোভাযাত্রায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, ৭ মার্চ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যোনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নির্ধারিত সময়ে এলেন এবং ধীর পায়ে মঞ্চে উঠলেন। লাখো জনতার দিকে তাকালেন। তাদের কণ্ঠে উচ্চারিত হচ্ছে ‘ বীর বাঙালি অস্ত্র ধর, বাংলাদেশ স্বাধীন কর’, ‘তোমার আমার ঠিকানা, পদ্মা মেঘনা যমুনা’, ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ ইত্যাদি স্লোগান। তারপর তিনি ভাষণ শুরু করলেন। মাত্র ১৮ মিনিটের ভাষণ। সেদিনের সেই জ্বালাময়ী ভাষণই বাংলার মুক্তিকামী মানুষকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে উদ্বুদ্ধ করেছিল।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সোহাগ হোসেনের পরিচালনায় আনন্দ শোভাযাত্রায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ, ভাইস চেয়ারম্যান, মো. আমজাদ হোসেন স্বপন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শর্মিলী দাস মিলি, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি-বেসরকারি দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সহস্রাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

আব্দুর রহমান আরমান/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :