দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র থেমে নেই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ১০:৩৬ এএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র থেমে নেই। ষড়যন্ত্রকারীরা এখনও বিচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন সহিংস কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। সরকার তাদের কঠোর হস্তে দমন করছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কোনো অপশক্তি এ অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে পারবে না। বাংলাদেশে কোনো সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ঠাঁই হবে না। যেখানে তাদের উত্থান হবে সেখানে প্রতিরোধ করা হবে।

বুধবার দুপুরে যশোর রামকৃষ্ণ মিশন ও আশ্রমে মন্দির উদ্বোধন ও উৎসর্গ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার সরকার আমাকে আহ্বান করেছিল। আমি মিয়ানমারে যাই। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে আলোচনা করেছি। আমরা তাদের আশ্বাস দিয়েছি, জোরালোভাবে বলেছি আমরা সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দিই না। বাংলাদেশের এক ইঞ্চি মাটিও সন্ত্রাসী কিংবা জঙ্গিদের ব্যবহার করতে দিই না। আমরা ভারতের সঙ্গে সুম্পর্ক তৈরি করেছি। মিয়ানমারের সঙ্গেও সুম্পর্ক তৈরি করতে চাই। আমাদের বিশ্বাস মিয়ানমার তাদের দেশের মানুষ ফেরত নিয়ে যাবে।

রামকৃষ্ণ মঠ ও মন্দিরের অধ্যক্ষ স্বামী পরদেবানন্দজী মহারাজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। এ বিশ্বাসকে বুকে ধারণ করে সরকার সব ধর্মের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে। তারপরও ষড়যন্ত্র চলছে।

বুধবার সমাপনী দিনের প্রথম পর্বের অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন- মানিকগঞ্জের বালিয়াটি রামকৃষ্ণ মিশন সেবাশ্রমের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী পরিমুক্তানন্দজী মহারাজ। এতে আলোচক ছিলেন ভারতের চেন্নাইয়ের রামকৃষ্ণ মিশন স্টুডেন্টস হোমের সম্পাদক শ্রীমৎ স্বামী শুকদেবানন্দজী মহারাজ।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন নিলু, খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ, যশোরের জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন ও পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান প্রমুখ।

মিলন রহমান/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :