রসিক নির্বাচনে ভোট পুন:গণনার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০২:২৩ পিএম, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭

রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনে সংরক্ষিত ৮নং (২৩, ২৪ ও ২৫)নং ওয়ার্ডে চশমা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আরজানা বেগম পুনরায় ভোট গণনার দাবি জানিয়েছেন। সোমবার দুপুরে মহানগরীর একটি এনজিও পরিচালনাধীন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি জানান।

লিখিত বক্তব্যে আরজানা বলেন, গত ২১ ডিসেম্বর রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সংরক্ষিত ৮নং ( ২৩,২৪ ও ২৫) ওয়ার্ডে ভোট গণনায় ও ফলাফল প্রকাশে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির আশ্রয় নেয়া হয়েছে। ওই ওয়ার্ডের মোট আঠারোটি কেন্দ্রে তিনি এগিয়ে থাকার পরেও পরিকল্পিতভাবে ফলাফল পাল্টিয়ে তাকে পরাজিত ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ভোট গণনার সময় অনেক কেন্দ্র থেকে তার পোলিং এজেন্টদেরকে জোর করে বের করে দেয়া হয়েছে। অনেক কেন্দ্রে তার ফলাফল পাল্টানোর কারণে উপস্থিত পোলিং এজেন্টগণ এর প্রতিবাদে ফলাফল সিটে স্বাক্ষর করেনি। তাদের প্রতিবাদের প্রতি কর্ণপাত না করে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসারগণ নিজেই মনগড়া ফলাফল সিট প্রস্তুত করে পোলিং এজেন্টদের স্বাক্ষর না নিয়েই রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জমা দেন।

তিনি বলেন, আঠারোটি কেন্দ্রের মধ্যে সালেমা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পুরুষ ও মহিলা কেন্দ্র, ইউসেপ স্কুল, জুম্মাপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মোসলেম উদ্দিন বালিকা বিদ্যালয়, সিটি কর্পোরেশন উচ্চ বিদ্যালয় এবং নিউ জুম্মাপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রগুলো থেকে ভোট গণনা শেষে সংশ্লিষ্ট প্রিজাইডিং অফিসারগণ চশমা প্রতীকের এজেন্টদেরকে ফলাফলপত্র না দিয়ে নির্বাচন কন্ট্রোলরুমে যোগাযোগ করতে বলেন। এতে এজেন্টগণ তাদেরকে বাধা দিলে তারা পুলিশ দিয়ে এজেন্টদেরকে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন।

আরজানা বেগম অভিযোগ করেন, তিনি প্রায় সাড়ে আট হাজার ভোটে এগিয়ে থাকার পরেও নির্বাচন কন্ট্রোলরুম থেকে তার প্রাপ্ত ভোট সাত হাজার ৭৭৪ প্রকাশ করা হয়েছে। যা মনগড়া এবং পরিকল্পিত।

তিনি জানান, এর প্রতিবাদে গত ২৪ ডিসেম্বর তিনি রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন-২০১৭ এর রিটার্নিং কর্মকর্তার বরাবরে এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ধরনের অনিয়ম ও কারচুপির প্রতিকারে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকলের সহায়তা চেয়ে ভোট পুন:গণনার জন্য অনুরোধ জানান। সংবাদ সম্মেলনে পোলিং এজেন্ট শরিফা, নুরজাহানসহ স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

জিতু কবীর/এমএএস/আইআই