ফতুল্লায় লঞ্চের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ১২:৫১ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৮
ফতুল্লায় লঞ্চের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি

ঘন কুয়াশায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলায় ফতুল্লার বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় একটি যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবে গেছে। ডুবে যাওয়া ট্রলারের চালকসহ আট যাত্রীকে উদ্ধার করা হলেও এখনও এক যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন। শুক্রবার ভোরে বক্তাবলী খেয়াঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিখোঁজ যাত্রী হলেন- ফতুল্লার উত্তর নরসিংপুর এলাকার মৃত বাছির মিয়ার ছেলে দুদু মিয়া (৫৫)। তিনি কসাইয়ের কাজ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ভোরে ঘন কুয়াশায় বুড়িগঙ্গা নদীর পূর্বপাড় হতে ৮/৯ জন যাত্রী নিয়ে বক্তাবলীর খেয়াঘাটের ট্রলারটি নদীর পশ্চিম পাড়ে রওয়ানা হয়। ট্রলারটি নদীর মাঝে যাওয়ার পর ঢাকাগামী একটি লঞ্চ সেটিকে ধাক্বা দিলে সঙ্গে সঙ্গে ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ট্রলারে থাকা যাত্রীরা চিৎকার শুরু করলে নদীর পূর্ব পাড়ে থাকা একটি ইটের ট্রলার দ্রুত সেখানে গিয়ে নারীসহ ৮ জন যাত্রীকে উদ্ধার করে। তবে এখনও দুদু মিয়া নামে একজন নিখোঁজ রয়েছে।

Narayanjong

ট্রলার চালক ইদ্রিস আলী জানান, ভোরে ঘন কুয়াশার কারণে ঘাটের ট্রলারটি বেঁধে একটি চায়ের দোকানে বসে ছিলাম। তখন কয়েকজন যাত্রী জোড় করে ট্রলারটি ছাড়তে বলে। পরে যাত্রী নিয়ে যাওয়ার পথে ঢাকাগামী একটি লঞ্চ ট্রলারের মাঝামাঝি এসে সজোড়ে ধাক্কা দেয়। এতে সঙ্গে সঙ্গে ট্রলারটি ডুবে যায়।

ফতুল্লার বিসিক ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আব্দুল হক জানান, যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবে যাওয়ার পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে হাজির হয়। ঘটনার পর আটজন যাত্রীকে স্থানীয়রা উদ্ধার করতে পারলেও এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছেন। ডুবে যাওয়া ট্রলারসহ নিখোঁজ যাত্রীকে উদ্ধার করতে ঢাকা থেকে ডুবুরি দল এসে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।

শাহাদাত হোসেন/আরএআর/পিআর