আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের স্কুলে ফিরিয়ে ক্লাস নিলেন ইউএনও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০৯:০২ পিএম, ১৬ আগস্ট ২০১৮

কক্সবাজারের পেকুয়ায় দুই শিক্ষকের অব্যাহতি আদেশের খবরে বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের শান্ত করে ক্লাসে ফেরালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবউল করিম। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার শিলখালী উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

বিদ্যালয় সূত্র জানায়, সকালে সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক ও সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল মোনাফের অব্যাহতির খবর শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বাইরে গিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও স্কুল পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপ করে তাদের শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু তারা ব্যর্থ হন। খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবউল করিম। তিনি শিক্ষকদের অব্যাহতি না করানোর আশ্বাস দিয়ে শিক্ষার্থীদের ক্লাস রুমে ফেরান। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তিনি স্কুলে গিয়ে দশম শ্রেণির দুই বিভাগে দুটি ক্লাসও নেন।

শিলখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইব্রাহিম বলেন, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ৬০ বছরের অধিক বয়সের দুই শিক্ষক আব্দুল মালেক ও আব্দুল মোনাফকে অব্যাহতির প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ খবর শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পরে পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে শিক্ষার্থীরা শান্ত হয়।

তবে শিলখালী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আসাদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, প্রবীণ দুই শিক্ষককে অব্যাহতি বা প্রত্যাহারের কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি পরিচালনা কমিটি। কিন্তু প্রধান শিক্ষক মো. ইব্রাহিমের যোগসাজশে একটি কুচক্রী মহল শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রচার করে এ অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে।

পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবউল করিম বলেন, শিক্ষার্থীদের অসন্তোষের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। এ সময় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপ করে তাদের ক্লাস রুমে ফেরানো হয়।

সায়ীদ আলমগীর/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :