পোষ্য হাতির আতঙ্ক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মৌলভীবাজার
প্রকাশিত: ১২:০৫ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মৌলভীবাজারের জুড়ি উপজেলার সাগরনাল বাশমহাল এলাকার মানুষ এবং এর পাশ দিয়ে যাওয়া ফুলতলা কুলাউড়া রোডের যাত্রীরা হাতি আতঙ্কের ভুগছেন। সেই সঙ্গে প্রশাসন আরও প্রাণহানির আশঙ্কা করছে। এরই মধ্যে হাতির আক্রমণে একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। এছাড়া হাতি ৩টি গাড়ি ভাঙচুরও করেছে।

বনবিভাগ সূত্র জানায়, ব্যক্তিগত এই হাতি যুগলদের কোনো অনুমতি ছাড়াই বনে ছেড়ে দিয়েছেন তার মালিক। হাতির আক্রমণে একজন মারা যাওয়ায় পরপর হাতি দুইটির মালিক কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের সাবেক মেম্বার ফরিদ আলী পলাতক রয়েছেন।

জুড়ি থানা পুলিশ জানায়, এবিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে তবে এটি হত্যা মামলা হিসেবে নেয়া হবে কিনা তা জানার জন্য ওপর মহলে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে এবং বনবিভাগের আইনে পোষ্য হাতির বিষয়ে জানতে চিঠি দেয়া হয়েছে। খুব দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে ব্যাপক প্রাণহানির আশঙ্কা রয়েছে তাই পুলিশ সুপার এবং জেলা প্রশাসনকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

এদিকে গত কয়েকদিন থেকে পালিত দুটি হাতি নিয়ে চরম আতঙ্কে আছে সাগরনাল বাশমহালের পাশ দিয়ে চলাচলকারী কুলাউড়া-জুড়ি উপজেলার মানুষ। বুধবার সকালে হাতির আক্রমণে একজনের মৃত্যু হওয়ায় আতংক আরও বেড়েছে।

কুলাউড়া রেঞ্জের সহযোগি রেঞ্জ অফিসার রিয়াজ উদ্দিন জানান, কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের সাবেক মেম্বার ফরিদ আলী বনবিভাগের কোনো অনুমতি ছাড়াই তার দুটি হাতিকে সাগরনাল বাশমহালে ছেড়ে দিয়েছেন। প্রজনন সময়ে হাতি খুব উগ্র আচরণ করে সেটা মালিকের জানার কথা। হাতির মালিক যদি পায়ে একটা শিকল দিয়েও ছেড়ে দিত তাহলেও প্রাণহানীর ঘটনা ঘটত না।

জুড়ি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ব্যাপক প্রাণহানীর আশঙ্কা জানিয়ে পুলিশ সুপার এবং জেলা প্রশাসককে চিঠি দিয়েছি এবং বন বিভাগকে তাদের আইন বুঝার জন্য চিঠি দিয়েছি। হাতি দুইটির মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না তাই প্রয়োজনে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে নিয়ে ছেড়ে দেয়া হবে।

ওসি বলেন, এটি হত্যা মামলা হবে কিনা তা জানতে ওপর মহলে যোগাযোগ করছি কারণ এই ধরনের ঘটনার পূর্ব অভিজ্ঞতা নেই।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে কুলাউড়া থেকে ফুলতলা যাবার পথে সাগরনাল চা এলাকায় রাস্তায় হাতির আক্রমণের শিকার হন কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আজমল আলী শামীম পরদিন বুধবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত সোমবার রাত ১০টার দিকে কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের গাজীপুর-ফুলতলা রোডের পূর্ব উগলি এলাকার রাস্তা দিয়ে ট্রাক, সিএনজি ও একটি প্রাইভেট কার যোগে ১০-১৫ জন লোক যাচ্ছিলেন। এসময় হঠাৎ করে হাতি দুটি গাড়ি ও লোকজনের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। ভয়ে লোকজন গাড়ি ফেলে পার্শ্ববর্তী একটি উঁচু টিলায় আশ্রয় নেন। এসময় টিলায় উঠতে গিয়ে পাঁচ যাত্রী আহত হন। পরে হাতিগুলো ৩টি গাড়ি ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে কুলাউড়া থানা পুলিশ মাহুত (হাতির চালক) নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হাতিগুলো কৌশলে তাড়িয়ে লোকজন এবং গাড়িগুলো উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

রিপন দে/আরএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :