হত্যাকারীর দেয়া তথ্যে ময়লার স্তূপে মিলল শিশুর মরদেহ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৬:১১ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০১৮
প্রতীকী ছবি

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের গাজীপুরা এলাকায় একটি কারখানার পাশে ময়লার স্তূপ থেকে আব্দুল্লাহ আল নোমান (৫) নামে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত এক গার্মেন্টস শ্রমিককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিহত আব্দুল্লাহ আল নোমান গাজীপুর সদর উপজেলার বানিয়ারচালা এলাকার মো. লোকমান হোসেনের ছেলে।

গ্রেফতার গার্মেন্টস শ্রমিক বাবুল হোসেন ওরফে বাবু (২২) দিনাজপুরের কাহারুল থানার গুলিয়ারা গ্রামের মৃত জব্বার আলীর ছেলে।

জয়দেবপুর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার হোসেন নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, বুধবার বিকেলে শিশু নোমান বাড়ির পাশে খেলা করছিল। এ সময়ে তাদের বাড়ির ভাড়াটিয়া বাবুল হোসেন শিশু নোমানকে ডেকে নিয়ে কোমল পানীয়র সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাওয়ায়। এতে শিশুটি অচেতন হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে শিশুটি মারা গেলে তার মরদেহ একটি কালো ব্যাগে ভরে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের গাজীপুরা এলাকায় হুপলোন পোশাক কারখানার পেছনে ময়লার স্তূপে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় বাবুল হোসেন বাবু। বুধবার রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত শিশু নোমানকে খুঁজে না পেয়ে তার বাবা লোকমান হোসেন জয়দেবপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

এসআই আনোয়ার হোসেন আরও জানান, পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনার তদন্ত শুরু করে। তদন্তে বাড়ির আশপাশের লোকজনের কাছ থেকে পুলিশ জানতে পারে বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত শিশু নোমানকে একই বাড়ির ভাড়াটিয়া বাবুলের সঙ্গে দেখা গেছে। পরে পুলিশ বাবুলকে আটক করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বাবুল শিশুটিকে হত্যার কথা স্বীকার করে এবং তার দেয়া তথ্যে বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে ওই স্থান থেকে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাবুল পুলিশকে জানিয়েছে- শিশুটির স্বজনদের সঙ্গে পূর্বশত্রুতার জের ধরে সে তাকে হত্যা করেছে।

আমিনুল ইসলাম/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :