‘খুনিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, পুলিশ ধরছে না’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০২:২৩ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

কক্সবাজার সদর উপজেলার ভারুয়াখালীর পশ্চিমপাড়া লবণমাঠ এলাকায় খুন হওয়া ভুট্টোর খুনিরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের চিহ্নিত করা গেলেও রহস্যজনক কারণে গ্রেফতার করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন নিহত ভুট্টোর মা মা হাজেরা বেগম। মঙ্গলবার বিকেলে কক্সবাজার প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

হাজেরা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করা গেলেও রহস্যজনক কারণে খুনিরা পার পাচ্ছে। তারা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করা হলেও তিনি কোনো ব্যবস্থা নেননি। এতে আমার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। সুযোগ পেলে তারা আবারও আমার পরিবারের অন্য কাউকে হত্যা করতে পারে। উৎকণ্ঠায় সময় পার করছি আমরা।

তিনি দাবি করেন, তাদের চিংড়ি ঘেরের সামনের অংশ প্রতিবেশী মৃত আবুল কাশেমের ছেলে হুমায়ুন কাজী দখল করতে চাইলে ভুট্টো বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ভারুয়াখালী দক্ষিণপাড়ার দিলুর ছেলে কাজল, আহম্মদ হোসেনের ছেলে পিয়ারু, সাবেকপাড়ার মমতাজের ছেলে আমান উল্লাহ আমান, খুইল্যা মিয়ার ছেলে সালা উদ্দিন, বানিয়াপাড়ার ছৈয়দুর রহমানের ছেলে হিরু, দক্ষিণপাড়ার বদিউল আলমের ছেলে জুনাইদ, কোরবান আলীর ছেলে মিজান, রহমত সালামের ছেলে শফিক, মহি উদ্দিনকে নিয়ে গ্যাং বাধে হুমায়ুন।

তারা বিভিন্নভাবে ভুট্টোকে হয়রানি করতে অপচেষ্টা চালায়। সর্বশেষ গত ২৫ জানুয়ারি রাতে ঘর থেকে ঢেকে নিয়ে তার ছেলেকে হত্যা করে। হত্যার মূল অভিযুক্ত মাদক সম্রাট হুমায়ুন কাজীর লালিত সন্ত্রাসী শফিক (৩৩), আমান (৩০), জুনাইদ (২৬, মিজান (২৩) ছাড়া কেউ গ্রেফতার হয়নি। এখন মামলা তুলে নিতেও হুমকি দিচ্ছে খুনি চক্র। তাই অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি করেন নিহত ভুট্টোর মা।

সংবাদ সম্মেলনে নিহতের বড়ভাই ও মামলার বাদী শহিদুল্লাহ, ছোট ভাই জিল্লুর রহমান (৩৪), রিয়াজ উদ্দিন (২৭), ভাবি নাছিমা আক্তার (২৮), নিহতের স্ত্রী মুন্নি আক্তার (১৯) ও তাদের একমাত্র সন্তান তিনমাস বয়সী মেয়ে মরিয়ম ছিদ্দিকা উপস্থিত ছিল।

অভিযোগের বিষয়ে কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) খায়রুজ্জামান বলেন, আসামিদের সঙ্গে পুলিশের সখ্যতার বিষয়টি সত্য নয়। পুলিশ অভিযুক্তদের ধরতে চেষ্টা চালাচ্ছে। শিগগিরই একটি সফলতা আসতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ২৫ জানুয়ারি রাত ১০টার দিকে ভুট্টোকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে হত্যার ঘটনায় তার বড় ভাই শহিদ উল্লাহ বাদী হয়ে কক্সবাজার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন (যার নং ১০৭/১৯)। মামলাটি ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই সনজিত চন্দ্র নাথ তদন্ত করছেন।

সায়ীদ আলমগীর/আরএআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]