ঈদ পরবর্তী টিকিটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়, চার কাউন্টারকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৯:০১ পিএম, ০১ জুন ২০১৯

ঈদ পরবর্তী ঢাকাগামী বাসের অগ্রিম টিকিটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের দায়ে বগুড়ায় চারটি পরিবহনের কাউন্টারকে মোট ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। শনিবার বিকেলে শহরের সাতমাথা এলাকায় অবস্থিত এসব কাউন্টারে অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করা হয়।

এদিকে অভিযানের প্রতিবাদে কাউন্টারগুলো বন্ধ রেখেছে মোটর শ্রমিক ও কাউন্টারের কর্মচারীরা।

জানা গেছে, ঈদকে সামনে রেখে বাস কাউন্টারগুলো অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছিল। আগাম টিকিট বিক্রির ক্ষেত্রে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে বেশি টাকায় এসব টিকিট বিক্রি করছিল বলে অভিযোগ উঠায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বগুডার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (এনডিসি) তাজ উদ্দিন। তিনি জানান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৩৮ ও ৪০ ধারায় চারটি পরিবহনের কাউন্টারকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে শাহ ফতেহ আলী পরিবহনের কাউন্টারকে ৩০ হাজার টাকা, হানিফ এন্টারপ্রাইজের কাউন্টারকে ২০ হাজার, শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টারকে ১০ হাজার এবং মানিক এক্সপ্রেসের কাউন্টারকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কাউন্টারগুলো ভোক্তা অধিকার আইন অমান্য করে আসছিল বলেও জানান তিনি।

বগুড়া জেলা মোটর মালিক গ্রুপের সভাপতি আখতারুজ্জামান ডিউক জানান, কয়েকটি পরিবহনের কাউন্টারে প্রশাসন থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত দিয়ে অভিযান চালিয়েছে। এর প্রতিবাদ জানিয়ে মোটর শ্রমিকরা কাউন্টার বন্ধ রেখেছে। তবে কাউন্টারগুলো কতক্ষণ বন্ধ রাখা হবে তা তিনি বলতে পারেননি।

বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সামসুদ্দিন শেখ হেলাল বলেন, কোনো কারণ ছাড়াই এই অভিযান চালানো হয়েছে। এর প্রতিবাদ মোটর শ্রমিক ও কর্মচারীরা কাউন্টার বন্ধ রেখেছে। কতক্ষণ পর কাউন্টার খোলা হবে এটা আলোচনা করে ঠিক করা হবে।

লিমন বাসার/এমবিআর/এমএস