বাবার কোমর ছেড়ে পানিতে তলিয়ে গেল মেয়ে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৬:২৮ পিএম, ০৮ জুন ২০১৯

দুই মেয়েকে নিয়ে নদীতে গোসল করছিলেন বাবা-মা। বাবা আমিরুল ইসলামের কোলে ছিল ছোট মেয়ে। আর বড় মেয়ে আদিয়া ইসলাম (১০) বাবার কোমর ধরে সাঁতরাচ্ছিল। কিন্তু হঠাৎ আদিয়া ইসলাম বাবার কোমর ছেড়ে পানিতে তলিয়ে যায়। নিখোঁজ আদিয়া ইসলাম মিরপুর গার্লস স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র।

ঈদের ছুটিতে নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে শনিবার দুপুরে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার কুস্তা ধলেশ্বরী নদীতে এ ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধারকাজ শুরু করলেও বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তার সন্ধান মেলেনি।
ঘিওর থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) আনিছুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ঢাকার মিরপুর শাহআলী এলাকার বাসিন্দা ব্যবসায়ী আমিরুল ইসলাম ঈদের ছুটিতে স্ত্রী সন্তান নিয়ে ঘিওরের কুস্তা গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে আসেন। দুপুরে দুই মেয়েকে নিয়ে তিনি ও তার স্ত্রী বাড়ির পাশের ইছামতি নদীতে গোসল করতে যান। এ সময় আমিরুল ছোট মেয়েকে কোলে এবং বড় মেয়ে আদিয়াকে কোমরে জড়িয়ে গোসল করছিলেন। কিন্তু হঠাৎ দেখেন বড় মেয়ে আদিয়া নেই। কখন কোমর ছেড়ে আদিয়া গভীর পানিতে তলিয়ে গেছে তা টের পাননি বাবা। পরে স্বামী-স্ত্রীর আহাজারিতে স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন। তাৎক্ষণিক স্থানীয়রা আদিয়াকে উদ্ধারে চেষ্টা চালান। কিন্তু নদীতে স্রোত থাকায় তারা ব্যর্থ হন। পরে ঘিওর ফায়ার সার্ভিস বিভাগকে খবর দেয়া হলে তাদের ডুবুরি দল উদ্ধারকাজ শুরু করেন। কিন্তু এখনো সন্ধান মেলেনি আদিয়ার।

বি.এম খোরশেদ/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :