রাঙ্গামাটিতে জ্বরে এলজিইডি প্রকৌশলীর মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাঙ্গামাটি
প্রকাশিত: ০৭:৩৬ পিএম, ০১ জুন ২০২০

রাঙ্গামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কার্যালয়ের উপজেলা প্রকৌশলী আনোয়ারুল ইসলাম করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

ব্যক্তি জীবনে আনোয়ারুল ইসলামের স্ত্রী ও তিন কন্যা সন্তান রয়েছে।আনোয়ারুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর আলবনগর গ্রামে।

বিলাইছড়ি উপজেলা এলজিইডি কার্যালয়ের কর্মচারী ক্যথুই প্রু মারমা জানান, রোববার সকাল ১০টার দিকে তিনি হঠাৎ বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন।পরে আমরা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। পরে উনার অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। রাঙ্গামাটিতে উনাকে নিয়ে যেতে রাত আটটা বেজে যায়। এরপরের বিষয়ে আমি কিছুই জানতে পারিনি।

বিলাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরী জানিয়েছেন, বিলাইছড়ি উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী আনোয়ারুল ইসলাম কয়েকমাস আগে বিলাইছড়িতে যোগদান করেছেন। করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে সরকারের সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর থেকে তিনি বিলাইছড়ির বাইরে কোথাও যাননি। দিনের বেলা অফিস শেষে ডরমেটরিতেই থাকতেন। তিনি গত ১৫ দিন ধরে কাশিতে ভুগছিলেন। এজন্য তিনি ডাক্তারের পরামর্শে ওষুধ নিয়েছেন, তবুও কাশি ভালো হয়নি। মারা যাওয়ার দুইদিন আগে থেকে তিনি জ্বরে ভুগেন।

ইউএনও আরও জানান, রোববার সকালে তিনি বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা তাকে রাঙ্গামাটি সদরের জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে অবস্থার অবনতি দেখে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে (চমেক) নেয়া হয়।

রোববার সারারাত চেষ্টা করেও কোনো আইসিইউ না মেলায় ভোরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় নেয়া হয়। পরে সকালে ঢাকার একটি প্রাইভেট হাসপাতালে তিনি মারা যান।

প্রকৌশলী আনোয়ারুল ইসলামের ছোট ভাই ও এলজিইডির কনসালটেন্ট মো. আলাউদ্দিন জানান, সোমবার সকাল দশটার দিকে আমার ভাই মিরপুরের রিজেন্ট হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুর পর তার করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তিনি বিলাইছড়িতে মার্চের ২৩/২৪ তারিখের দিকে যোগদান করেছিলেন।’

সাইফুল বিন হাসান/এমএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]