সবাইকে অবাক করে হিল্লোল এখন ম্যাজিস্ট্রেট

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৬:৩২ পিএম, ০২ জুলাই ২০২০
৩৮তম বিসিএসে ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে সুপারিশপ্রাপ্ত হিল্লোল চাকমা
মুজিবুর রহমান ভুইয়া, খাগড়াছড়ি

পার্বত্য খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলার ছেলে হিল্লোল চাকমা। বেড়ে উঠেছেন মহালছড়ির পাহাড়ের মেঠোপথে। সবাইকে অবাক করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হলেন হিল্লোল চাকমা। ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফলাফলে প্রশাসন ক্যাডারে (বিসিএস-অ্যাডমিন) সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে শুধু নিজেকে নয়, আলোকিত করেছেন পাহাড়ি জনপদ মহালছড়িকেও।

মহালছড়ি সদর ইউনিয়নের বাবুপাড়া গ্রামের শান্তিজীবন চাকমা ও শশীরাণী চাকমার দ্বিতীয় সন্তান হিল্লোল চাকমা। ২০০৯ সালে জিপিএ-৫ পেয়ে মহালছড়ি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০১১ সালে খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে চমক দেখান তিনি।

শিক্ষাজীবনে অত্যন্ত মেধাবী হিল্লোল চাকমা খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) থেকে বিএসসি ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অনার্স-মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। পরে ইউরোপিয়ান ইউনিভর্সিটি অব বাংলাদেশে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। হিল্লোল চাকমার বাবা শান্তিজীবন চাকমা নানিয়ারচর উপজেলার সাবেক্ষং ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ও মা শশীরাণী চাকমা গৃহিণী।

jagonews

সহপাঠীদের সঙ্গে হিল্লোল চাকমা

তিন ভাই-বোনের মধ্যে বড় বোন উপালি চাকমা নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স-মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন। ছোট ভাই চিরন্তনসত্য চাকমা সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজে এমবিবিএসে অধ্যয়নরত।

নিজের এই সাফল্যের কথা জানিয়ে হিল্লোল চাকমা বলেন, আমার কঠোর পরিশ্রম ও প্রচেষ্টার ফসল আজকের সাফল্য। মা-বাবা, ভাই-বোন ও বন্ধু-বান্ধবদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আগামী দিনের পথচলায় সবার দোয়া চাই। নিজের সবটুকু উজাড় করে দিয়ে মানুষের সেবা করব। ন্যায়নীতিতে অটল থাকব।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]