এমপির ভাই-ভাতিজার বালু তোলা বন্ধ করলো প্রশাসন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৮:৫০ এএম, ১৬ জুলাই ২০২০

নোয়াখালী সদর উপজেলায় ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় তিনটি মেশিন ও ৫শ মিটার পাইপ ধ্বংস করে বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন।

বুধবার (১৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার এওজবালিয়া ইউনিয়নের মান্নান হাইস্কুল এলাকার আকবর হোসেনের বাড়ি ও মরহুম আবদুল ওহাবের বাড়িতে এ অবৈধ বালু উত্তোলনের মেশিন এবং পাইপ ধ্বংস করেন সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জাকারিয়া।

অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীরা হলেন- লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনের সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) আবদুল মান্নানের ছোট ভাই আকবর হোসেন ও ভাতিজা পারভেজ হোসেন।

sand-1

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জাকারিয়া জানান, উপজেলার এওজবালিয়া ইউনিয়নের মান্নান হাইস্কুল এলাকার আকবর হোসেন ও তার ভাতিজা পারভেজ হোসেন নিজ নিজ বাড়িতে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছিলেন। তারা বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে স্থানীয় অসাধু সিন্ডিকেটের সদস্য নাজিম উদ্দিন লতিফ ওরফে ক্রিমিনাল লতিফ, আনোয়ার হোসেন, মো. মাসুদ, আবদুর রহমান ও ফজলুর সহযোগিতায় এ কাজ করছিলেন। এর আগেও আকবর হোসেনের বাড়িতে বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে মেশিন জব্দ করে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তারপরও তিনিসহ তার ভাতিজা পুনরায় বালু উত্তোলন শুরু করেন।

স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় আকবর হোসেনের বাড়িতে একটি মেশিন ও ৩শ মিটার পাইপ এবং পারভেজের বাড়িতে দুইটি মেশিন ও ২শ মিটার পাইপ ধ্বংস করে বালু উত্তোলন বন্ধ করা হয়েছে। তবে অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে বালু উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত লতিফসহ তার সহযোগীরা পালিয়ে যান বলে জানান তিনি।

অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে তাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জাকারিয়া।

মিজানুর রহমান/এফএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]