সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব-বীর মুক্তিযোদ্ধা নিজাম উদ্দিনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৩:৫৫ এএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২১
সিলেটের প্রবীণ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়নাসিলেটের প্রবীণ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়না

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন সিলেটের প্রবীণ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়না। রোববার (১৭ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে কিডনি জটিলতাসহ নানা রোগে ভুগছিলেন নিজাম। তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর।

জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেটের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত।

তিনি জানান, সিলেটের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অভিভাবক নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়নার মরদেহ সোমবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে রাখা হবে। পরে জোহরের নামাজের পর হজরত শাহজালাল (রহ.) দরগা মসজিদে তার জানাজার নামাজ শেষে দরগাহ গোরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়না ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হিসেবে বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। একটি সম্মুখযুদ্ধে তিনি পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। তিনি নাট্যকার, নির্দেশক, অনুবাদক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠক হিসেবে সিলেটে সুপরিচিত। এছাড়া সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের তিন বারের প্রধান পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে টানা তিন বার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছিলেন এই গুণী ব্যক্তিত্ব।

পারিবারিক সূত্র জানায়, কয়েকদিন আগে নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়না ব্রেইন স্ট্রোক করে মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। পরে শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে আবারও শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে তাকে নগরের জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তিনি রোবববার মারা যান।

১৯৫২ সালের ৯ এপ্রিল সিলেট নগরের লামাবাজার এলাকার বিলপাড়ে নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়নার জন্ম। তার বাবা ফকর উদ্দিন লস্কর, মা সাহার বানু লস্কর। ৫ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে নিজাম উদ্দিন ছিলেন সবার বড়।

তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও মেয়ে রেখে গেছেন।

ছামির মাহমুদ/এসএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]