পিটিয়ে বের করে দিল ছেলে, বৃদ্ধ বাবা-মাকে ঘরে ফেরালেন ইউএনও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ০২ মার্চ ২০২১

বসতভিটা ও গাছপালা বিক্রি করে টাকা না দেয়ায় বৃদ্ধ বাবা আব্দুল আজিজ শেখ (৮০) ও মা হালিমা খাতুনকে (৭২) পিটিয়ে ঘর থেকে বের করে দেয় ছেলে হযরত আলী। পরে উপজেলা নির্বাহী কমর্কতা (ইউএনও) মো. জাকির হোসেনের হস্তক্ষেপে বাড়ি ফিরেন তারা।

পরদিন মঙ্গলবার (২ মার্চ) ওই দম্পতিকে দেখতে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ফানুর গ্রামে যান ইউএনও মো. জাকির হোসেন। এসময় তিনি বৃদ্ধ পিতা-মাতার দেখভালের জন্য সন্তানদের অনুরোধ করেন। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি করেন তিনি।

আব্দুল আজিজ শেখ উপজেলার শানুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়ের জনক। তিন ছেলে ঢাকায় ও এক ছেলে বিদেশে থাকে। বাড়িতে থাকা বড় ছেলে হযরত আলীর সঙ্গে গ্রামে বসবাস করেন তিনি।

jagonews24

এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘বৃদ্ধ আব্দুল আজিজ বড় ছেলে হযরত আলীকে নিয়ে একসঙ্গে গ্রামের বাড়িতে বসবাস করেন। হযরত আলী বসতভিটা ও গাছপালা বিক্রি করে টাকা না দেয়ায় বৃদ্ধ বাবা-মাকে লাঠি দিয়ে পেটাত। এছাড়াও খাওয়া-দাওয়া কষ্ট দিয়ে মানসিক নির্যাতন করত। সোমবার (১ মার্চ) পিটিয়ে তাদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে অফিসে এসে নালিশ করলে তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে সকালে ওই বাড়িতে উপস্থিত হই।’

এ সময় হযরত আলী পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও এলাকার লোকজনদের দায়িত্ব দেয়া যেন বৃদ্ধ ওই দম্পতিকে দেখভাল ও ভরণ-পোষণ তাদের সন্তানদের দ্বারা নিশ্চিত করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘ওই বৃদ্ধ দম্পতিকে বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দেয়া হবে। বৃদ্ধ আব্দুল আজিজ নির্যাতনের বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দেবেন বলেও জানান তিনি।’

মঞ্জুরুল ইসলাম/আরএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]