সুনামগঞ্জে ইউএনওর নম্বর ক্লোন করে শিক্ষকদের কাছে টাকা দাবি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সুনামগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:৫০ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০২১

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মেহেদী হাসানের সরকারি মোবাইল নম্বর ক্লোন করে উপজেলার কলেজ ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষকদের কাছে টাকা দাবির অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ইউএনওর মোবাইল নম্বরটি ক্লোন করা হয়। এ সময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ল্যাপটপ বরাদ্দ পাওয়ার কথা বলে বিকাশে টাকা পাঠানোর দাবি জানানো হয়। বিষয়টি বুঝতে পেরে শিক্ষকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দফতরে যোগাযোগ করলে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

পরে ইউএনও মেহেদী হাসান ইউএনও জগন্নাথপুরের ফেসবুক পেজে প্রতারক থেকে সাবধান থাকার আহ্বান জানিয়ে তার সরকারি নম্বরটি ক্লোন হওয়ার কথা জানান।

জগন্নাথপুর উপজেলার কেশবপুর উচ্চ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফররুখ আহমদ বলেন, ‘উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সরকারি নম্বর থেকে সাড়ে ৭টায় আমাকে ফোন করে বলে আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি ল্যাপটপ সরকার থেকে বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আমি এখন ডিসি অফিসে আছি। আপনি এই মুহূর্তে ৯ হাজার টাকা এই ০১৬.......৫ নম্বরে পাঠান। বিষয়টি সন্দেহ হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দফতরে যোগাযোগ করে বিষয়টি নিশ্চিত হই।’

শাহজালাল মহা বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এম এ মতিন বলেন, ‘আমাকে ইউএনওর নম্বর থেকে বারবার ফোন করছিল। ফোন ধরে যখন টাকা চায় সন্দেহ হলে আমি বিষয়টি নিশ্চিত হতে নানা প্রশ্ন করি। তখন প্রতারক চক্র ফোন কেটে দেয়।’

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান বলেন, ‘খবর পেয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গ যোগাযোগ করে বিকাশ নম্বরটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতারণার বিষয়ে সর্তক হতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণা চালানো হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখন পর্যন্ত কারও কাছ থেকে টাকা নেয়ার খবর পাওয়া যায়নি। তবে শিক্ষকদেরকে ফোন করছে বলে শিক্ষকরা জানিয়েছেন।’

লিপসন আহমেদ/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]