বৃষ্টিতে নাকাল নড়াইল পৌরবাসী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নড়াইল
প্রকাশিত: ১০:৩৬ এএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

দুদিনের একটানা বর্ষণে জলাবদ্ধতায় নাকাল নড়াইল পৌরবাসী। শহরের বেশিরভাগ সড়ক এবং বাড়ির আঙিনা পানিতে নিমজ্জিত। অনেক বাড়ির ভেতরে পানি প্রবেশ করে আসবাব নষ্ট হচ্ছে। রান্না পর্যন্ত বন্ধ হয়ে গেছে এসব বাড়িতে।

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ও মঙ্গলবারের (১৪ সেপ্টেম্বর) বৃষ্টিতে নড়াইল পৌরসভার ২, ৩, ৪, ৫, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বেশিরভাগ সড়ক পানিতে ডুবে গেছে। কুড়িগ্রাম, মাছিমদিয়া, ভওয়াখালী, আলাদাতপুর, দক্ষিণ নড়াইল, দুর্গাপুর, মহিষখোলা, বরাশোলা, ভাটিয়া ও সিটি কলেজ পাড়ার অবস্থা বেশি নাজুক।

jagonews24

জেলা সূত্র জানায়, ১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় নড়াইল পৌরসভা। এরপর ৪৯ বছর পেরিয়ে গেলেও পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। রূপগঞ্জ-তুলারামপুর খাল, ভাদুলিডাঙ্গা-মুলিয়া খাল, উত্তর ভওয়াখালী-বাহিরডাঙ্গা খালসহ কয়েকটি জলাশয় দিয়ে প্রাকৃতিকভাবে পৌর এলাকার পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। বর্তমানে এসব খাল ও জলাশয় ভরাট ও দখল করে অপরিকল্পিতভাবে নড়াইল শহর ও পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে কয়েক হাজার বাড়ি, মার্কেট ও স্থাপনা গড়ে উঠেছে। শহরের পাশ দিয়ে রেললাইনের কাজ করার কারণে পৌরসভার ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

jagonews24

৬ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা পলি রহমান বলেন, বৃষ্টি হলেই মহল্লায় হাঁটুপানি জমে যায়। পানি বের হওয়ার কোনো জায়গা থাকে না। ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আল আমিন বলেন, ঘরে পানি ঢোকায় আসবাব ভিজে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। রান্নাঘরে রান্নার পরিবেশ নেই।

এ ব্যাপারে নড়াইল পৌরসভার মেয়র আনজুমান আরা বলেন, দীর্ঘ বছর ধরে অপরিকল্পিত এবং বিচ্ছিন্নভাবে ড্রেন তৈরি করা হয়েছে। খাল-জলাশয়গুলো ভরাট ও দখল করার কারণেও এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

jagonews24

তিনি বলেন, বর্তমানে নড়াইল পৌরসভায় প্রয়োজন ৫৫ কিলোমিটার ড্রেন। সেখানে রয়েছে মাত্র তিন কিলোমিটার। তবে পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা গড়ে তোলার চেষ্টা চলছে।

হাফিজুল নিলু/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]