রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া দুই লাখ টাকা মালিককে ফিরিয়ে দিলেন রিকশাচালক

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বিরামপুর (দিনাজপুর)
প্রকাশিত: ০৪:৪৬ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২১

নিজের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ১০ লাখ টাকা সোনালী ব্যাংক হাকিমপুর শাখায় জমা দিতে যাচ্ছিলেন আবুল বাশার মুন নামের এক যুবক। পথে ব্যাগ থেকে দুই লাখ টাকা রাস্তায় পড়ে যায়। হাফিজুল ইসলাম নামের এক রিকশাচালক টাকাগুলো পান। পরে তিনি টাকার মালিককে খুঁজতে থাকেন। তবে মালিকের সন্ধান না পেয়ে হাকিমপুর থানায় টাকা জমা দেন। পরে প্রকৃত মালিককে ওই টাকা হস্তান্তর করে পুলিশ।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার (হিলি) চারমাথা মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খায়রুল বাশার শামীম জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, ভারতে চাল আমদানি করার জন্য আবুল বাশার মুন নামের এক যুবক ১০ লাখ টাকা হাকিমপুর সোনালী ব্যাংকে জমা দেওয়ার জন্য যাচ্ছিলেন। ওই ব্যক্তির ব্যাগের চেন ছেঁড়া থাকায় ব্যাগ থেকে এক লাখ টাকার দুটি বান্ডিল পড়ে যায়। রাস্তায় হাফিজুল ইসলাম নামের এক রিকশাচালক হারিয়ে যাওয়া টাকা পেয়ে প্রকৃত মালিককে খুঁজতে থাকেন। পরে উপ-পরিদর্শক (এসআই) বেলাল হোসেনের সহযোগিতায় হাকিমপুর থানায় টাকা জমা দেন হাফিজুল ইসলাম।

টাকা পাওয়ার বিষয়টি হাকিমপুর থানা পুলিশের ফেসবুক পেজে প্রকাশ করা হলে টাকার মালিক আবুল বাশার মুন থানায় এসে টাকা নিয়ে যান।

জানতে চাইলে হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. খায়রুল বাশার শামীম জাগো নিউজকে বলেন, এক ব্যবসায়ী তার ছেলে আবুল বাশার মুনের মাধ্যমে টাকা ব্যাংকে জমা দেওয়ার জন্য পাঠিয়েছিলেন। ব্যাগের চেন ছেঁড়া থাকায় রাস্তায় দুই লাখ টাকা পড়ে যায়। রিকশাচালক হাফিজুলের সততার কারণে প্রকৃত মালিক টাকাগু ফিরিয়ে পেয়েছেন।

এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]