হিলি স্থলবন্দর দিয়ে কমেছে গমের আমদানি

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি হিলি (দিনাজপুর)
প্রকাশিত: ০৬:৫৬ পিএম, ১৮ মে ২০২২
খালাসের অপেক্ষায় হিলি বন্দরে গমবোঝাই ট্রাক

ভারত গম রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পর থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে কমেছে আমদানি। ফলে সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিকেজি গমের দাম বেড়েছে ৭-৮ টাকা। আর মণে বেড়েছে ২৫০-৩০০ টাকা। যদিও এ বন্দরে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে ১০০টি গম বোঝাই ট্রাক।

হিলি স্থলবন্দর ঘুরে দেখা যায়, আমদানিকারকদের গুদামে গম রয়েছে। সপ্তাহ খানেক আগেও বন্দরে প্রতিকেজি গম বিক্রি হয়েছে ৩৩-৩৪ টাকা। সে গম ৭-৮ টাকা বেড়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ৪১-৪২ টাকায়।

হিলি কাস্টমসের তথ্যমতে, চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে ১৭ মে পর্যন্ত হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে এক লাখ ৬৭ হাজার টন গম আমদানি হয়েছে।

হিলি স্থলবন্দরে গম কিনতে আসা পাইকার আসাদুল ইসলাম বলেন, হঠাৎ করে ভারত সরকারের সিদ্ধান্তের প্রভাব আমাদের ওপর পড়েছে। আমরা বিভিন্ন ফ্লাওয়ার মিলগুলোতে এখান থেকে গম কিনে পাঠানো হয়। আগে থেকে পুরোনো দামে অনেক গমের অর্ডার নেওয়া আছে। এখন তো দাম বেড়েছে আমাদের বড় ধরনের লোকসান গুনতে হবে।

হিলি স্থলবন্দরের গম আমদানিকারক আমিরুল ইসলাম লিটন বলেন, নিষেধাজ্ঞার পর থেকে হিলি স্থলবন্দরে গমের আমদানির পরিমাণ কমেছে। সে দেশে গমের দাম বৃদ্ধির কারণে আমাদের এখানেও দাম বেড়েছে। দাম বাড়ার কারণে আমাদেরও সমস্যা হচ্ছে গম বিক্রিতে।

তিনি আরও বলেন, ১২ মের আগে ৭০ হাজার টন গমের এলসি দেওয়া আছে। এ বন্দর দিয়ে সেগুলো হয়তো এখন আমদানি হবে।

হিলির পানামা পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাব মল্লিক বলেন, স্থলবন্দর দিয়ে গমের আমদানি অব্যাহত রয়েছে। এ বন্দরে খালাসের অপেক্ষায় এখন ১০০টি গম বোঝাই ভারতীয় ট্রাক।

মাহাবুর রহমান/আরএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]