ঠিকাদারের চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে ইউপি চেয়ারম্যান

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লালমনিরহাট
প্রকাশিত: ০৪:০৬ পিএম, ২৮ জুন ২০২২
চাঁদাবাজি মামলায় গ্রেফতার লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকালে ওই ইউনিয়নের শ্রুতিধর এলাকায় তার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের বড়দীঘিরপাড় এলাকায় একটি সড়ক নির্মাণের ঠিকাদারি করছেন এলাহী বকস নামের এক ঠিকাদার। সড়ক নির্মাণে অনিয়ম হচ্ছে জানিয়ে স্থানীয় লোকজন ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের কাছে অভিযোগ করেন। অভিযোগের পেয়ে ঠিকাদার এলাহী বকসকে ডাকেন এবং সরেজমিন পরিদর্শন করে সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করেন ইউপি চেয়ারম্যান।

এ ঘটনায় রোববার (২৬ জুন) ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের বিরুদ্ধে ৪-৫ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মামলা করেন ওই ঠিকাদার। পরে মঙ্গলবার সকালে শ্রুতিধর এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ।

ভোটমারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের পরিবারের অভিযোগ, স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা করেছেন ঠিকাদার এলাহী বকস।

এ বিষয়ে ঠিকাদার এলাহী বকস জাগো নিউজকে বলেন, ‘চাঁদা চাওয়াটা বড় কথা নয়। চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে ও আমার ছেলেকে চৌকিদার দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে ধরে নিয়ে গেছেন। এতে আমার মন খারাপ। তাই মামলা করেছি।’

তাহলে চাঁদাবাজির মামলা কেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘মামলা তো চাঁদাবাজিরই হবে। আসেন, সাক্ষাতে কথা হবে।’

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রসুল জাগো নিউজকে বলেন, ‘একটি চাঁদাবাজির মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

রবিউল হাসান/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]