ভিশনের পণ্য কিনলে নিশ্চিত পুরস্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২০ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ঘুরতে আসেন মিরপুরের বাসিন্দা মো. ইমরান হোসেন। মেলায় প্রভেশ করেই চোখে পড়ে ভিশন ইলেক্ট্রনিক্সের প্যাভিলিয়ন। ঘুরতে ঘুরতে পছন্দ হয়ে যায় একটি রাইস কুকার। সংসারের প্রয়োজন থাকায় কিনেও নেন সেটি।

ভিশনের পণ্য কেনায় প্যাভিলিয়নের দায়িত্বরতরা তাকে দেন একটি গোল্ড কার্ড (স্ক্র্যাচ কার্ড)। সেটি ঘষতেই ইমরান পেলেন ৫০০ টাকা পুরস্কার। স্ক্র্যাচ কার্ড ঘষে এমন পুরস্কার পাওয়ায় অভিভূত ইমরান। বলেন, জীবনে অনেকবার লটারি কিনেছি। কিন্তু কখনো পুরস্কার পাইনি। এই প্রথম পুরস্কার পেলাম। পুরস্কারের অংক বড় না ছোট সেটা বিষয় নয়, পুরস্কার পেয়েছি এটাই বড় বিষয়।

তিনি আরো বলেন, মেলায় প্রবেশ করে জানতে পারি ভিশন ইলেক্ট্রনিক্সের পণ্য কিনে রাশিয়ায় গিয়ে ফ্রি বিশ্বকাপ দেখার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া বাসার জন্য একটি রাইস কুকার প্রয়োজন ছিল। প্যাভিলিয়নটিতে প্রবেশ করে একটি রাইস কুকার পছন্দ হয়। সেটি কেনার কারণে আমাকে দেয়া হয় স্ক্র্যাচ কার্ড। কার্ড ঘষে রাশিয়ার বিশ্বকাপ খেলা দেখার সুযোগ হয়নি, কিন্তু নগদ অর্থ তো পুরস্কার পেয়েছি। এটাই বড় বিষয়।

শুধু ইমরান হোসেন নয় ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা থেকে ভিশন ইলেক্ট্রনিক্সের পণ্য কিনলেই নিশ্চিত পুরস্কার পাচ্ছেন ক্রেতারা। ভিশনের পণ্য কিনে নগদ ছাড়, গিফট বক্সসহ সৌভাগ্যবানরা পেতে পারেন ফ্রি রাশিয়ায় গিয়ে বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা দেখার সুযোগ।

fair

মেলার প্রধান ফকট দিয়ে প্রবেশ করে সামনে তাকালেই চোখে পড়বে ভিশন ইলেক্ট্রনিক্সের দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন। প্যাভিলিয়নটির ইনচার্জ মো. মোমিনুল হক বলেন, মেলা থেকে ভিশনের যে কোনো পণ্য কিনলে ক্রেতাকে দেয়া হচ্ছে গোল্ড কার্ড। এটি স্ক্র্যাচ (ঘষে) করলেই পাওয়া যাবে নিশ্চিত পুরস্কার।

তিনি বলেন, মেলা থেকে ক্রেতারা ভিশনের টেলিভিশ, ফ্রিজ, এসি, রাইস কুকার, ব্লেন্ডার, ওভেন, কেটলি, ইনডাকশন কুকার, ইনফারেন্ট কুকার, রুটি মেকার, রুম হিটার, আয়রন, ফ্যানসহ বিভিন্ন পণ্য কিনতে পারবেন।

মেলায় ভিশনের বিশেষ আকর্ষণ কী- জানতে চাইলে মোমিনুল বলেন, নতুন আকর্ষণ হিসেবে মেলায় আনা হয়েছে ৫১২ লিটার ও ৫৬৬ লিটারের ফ্রিজ। সেই সঙ্গে রয়েছে এক টনের পোর্টেবল এসি। এসব পণ্যের মূল্য এখনো নির্ধারণ হয়নি। তবে আগ্রহীরা প্যাভিলিয়নে এসে ফ্রিজ ও এসি নিজের চোখে দেখে যেতে পারবেন।

মেলা থেকে পণ্য কিনে রাশিয়ার বিশ্বকাপ খেলা দেখার সুযোগ কেউ কি পেয়েছেন- এমন প্রশ্নে মোমিনুল বলেন, মেলার প্রথমদিকে ক্রেতা ও দর্শনার্থীর সংখ্যা একটু কম থাকে, বেচাবিক্রিও তুলনামূলক কম। তবে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। এখনো সেই সৌভাগ্যবান ক্রেতার সন্ধান আমরা পাইনি। আশা করছি শিগগিরই পেয়ে যাবো।

এমএএস/এমএআর/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :