টপ টেন মার্ট : হাজার টাকার পণ্যে প্রতিদিন পুরস্কার ৩২ ইঞ্চি টিভি

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৫৭ পিএম, ২৬ মে ২০১৯

‘আমি কি মিস ফারহানার (ছদ্ম নাম) সঙ্গে কথা বলছি? আপনি টপ টেন মার্ট থেকে গত বৃহস্পতিবার পণ্য কিনে কুপন পূরণ করে বক্সে ফেলেছিলেন। কনগ্রাচুলেশন্স, আপনি র‌্যাফল ড্রতে পুরস্কার হিসেবে ৩২ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন পেয়েছেন। আপনার কুপনটি নিয়ে এসে পুরস্কারটি নিয়ে যাবেন।’

রাজধানীর নীলক্ষেতের অদূরে কাঁটাবনে টপ টেন মার্টের ম্যানেজার রমজানের প্রথম দিন থেকে প্রতিদিনই ক্রেতাদের ফেলা কুপনের ড্রয়ে বিজয়ীর কাছে ঠিক এভাবেই মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে পুরস্কার প্রাপ্তির খবর দেন।

top-ten

ঈদ উপলক্ষে টপ টেন মার্টে মাত্র ১ হাজার টাকার যে কোনো পণ্য কিনলে প্রতিদিনই থাকছে ৩২ ইঞ্চি রঙেন টেলিভিশন পাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ। এছাড়া চূড়ান্ত কুপন ড্রতে পুরস্কার হিসেবে প্রাইভেট কার, মোটরসাইকেল, রেফ্রিজেরেটরসহ তিন হাজার পুরস্কার জয়ের হাতছানি।

একই ছাদের নিচে বিভিন্ন বয়সী নারী, পুরুষ, ও শিশুদের জন্য দেশি-বিদেশি ব্যতিক্রমধর্মী পোশাক, জুতা, কসমেটিকস, খেলনাসহ সবধরনের পণ্যের জন্য দ্রুততম সময়ে ক্রেতাদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সুবিশাল আয়তনের টপ টেন মার্ট।

top-ten

রোববার (২৬মে) দুপুরে সরেজমিন পরিদর্শন ও প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, টপ টেন মার্ট অল্প মুনাফা, বেশি বিক্রি নীতিতে বিশ্বাসী। আর দশটা মার্কেটের দোকানপাটের চেয়ে তাদের সংগ্রহে অনেক বেশি পণ্য রয়েছে। একই ছাদের নিচে সুলভমূল্যে এতো বেশি পণ্য কেনার সুযোগ রাজধানীতে কমই রয়েছে বলে দাবি করলেন ফ্লোর ইনচার্জ আক্তার হোসেন।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, আন্ডারগ্রাউন্ডে তাদের ২৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের সুবিশাল জুতার সমারোহ রয়েছে। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন  ব্র্যান্ডের জুতা সুলভমূল্যে কেনার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রেতারা। জুতার পাশাপাশি প্রেসিডেন্টসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের চামড়ার ব্যাগেজও পাওয়া যাচ্ছে সেখানে।

top-ten

প্রথম তলায় রয়েছে কসমেটিকস্, গহনা, আন্ডার গার্মেন্টস্, মানিবাগ, বেল্ট, শার্টিং-স্যুটিং, দেশ বিদেশের পাঞ্জাবির ব্যতিক্রম কালেকশন ও টেইলারিং শাখা।

দ্বিতীয় তলায় রেডিমেট আইটেম (শেরওয়ানি, পাঞ্জাবি, প্রিন্সকোট, ফতুয়া, কাবলি, মুজিব কোট, কুটি), শাড়ি, থ্রি-পিস (স্টিচ, আন স্টিচ), লেহেঙ্গা, রেডিমেট শার্ট, প্যান্ট, টি-শার্ট। শিশুদের জন্য রয়েছে সবচেয়ে বেশি কালেকশন।

top-ten

এবারের ঈদে তাদের ব্যবসা কেমন জানতে চাইলে আক্তার হোসেন বলেন, টপ টেন ক্রেতাদের বিশ্বস্ততা অর্জন করায় বছরজুড়েই ক্রেতা থাকে। তবে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে মেট্রো রেলের নির্মাণকাজ চলায় তাদের নদীর মাঝখানে পড়ার দশা হয়েছে। প্রচণ্ড যানজটে পড়ার আশঙ্কায় ঢাকা ও ঢাকার বাইরের অনেক ক্রেতা তাদের এখানে আসেন না। তবে সার্বিকভাবে ব্যবসা ভালই বলে তিনি মন্তব্য করেন।

পরিদর্শনকালে দেখা গেছে লোকজন পণ্য কেনাকাটা করে খুব আগ্রহের সঙ্গে কুপন পূরণ করে বাক্সে ফেলছেন। অনেকের হাতেই পুরস্কার পাওয়ার আশায় একাধিক কুপন দেখা যায়।

top-ten

রাজধানীর কলাবাগানের বাসিন্দা হাসিবুল হাসান সস্ত্রীক এসেছেন। নিজের জন্য রেডিমেট শার্ট ও স্ত্রীর জন্য জুতা কিনে কুপন পূরণ করছিলেন। তিনি বলেন, টিভি চাই না, গাড়ি পেলে সেটি স্ত্রীর আর মোটরসাইকেল পেলে নিজে চালাবেন।

এমইউ/এমএমজেড/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :