পোশাকশ্রমিকের সেবায় ঢাকা-চট্টগ্রামে ১২ স্বাস্থ্যকেন্দ্র

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ এএম, ২৯ নভেম্বর ২০২১

পোশাকশ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের বিনামূল্যে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার জন্য ঢাকা ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে ১২টি স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিচালিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি মো. ফারুক হাসান। পাশাপাশি বিজিএমইএ শ্রমিকদের জন্য চট্টগ্রামে একটি পূর্ণাঙ্গ হাসপাতালও পরিচালনা করছে বলে জানান তিনি।

রোববার (২৮ নভেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আন্তর্জাতিক সংস্থা গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ইমপ্রুভড নিউট্রিশনের (গেইন) সহযোগিতায় এক কর্মশালায় এসব কথা বলেন তিনি। এ কর্মশালার আয়োজন করে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর।

শ্রম ও কর্মসংস্থান সচিব মো. এহছানে এলাহীর সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, পোশাকশ্রমিকদের যথাযথ স্বাস্থ্যসুরক্ষার জন্য সরকার এবং উন্নয়ন সহযোগীদের সহায়তায় বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে আসছে বিজিএমইএ। পোশাকশিল্পে কর্মরত ল্যাকটেটিং নারী শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বিজিএমইএ। নবজাতক সন্তানদের লালন-পালনের জন্য ল্যাকটেটিং নারী শ্রমিকদের বিশেষ যত্ন, অধিক পুষ্টি এবং উচ্চতর ক্যালোরির প্রয়োজন হয়।

সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতে ব্যক্তি এবং কারখানা পর্যায়ে দক্ষতা উন্নয়ন ও উৎপাদনশীলতা বাড়ানোর জন্য শ্রমিকদের দুর্বল খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন এবং পর্যাপ্ত পুষ্টি নিশ্চিতের প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন বিজিএমইএ সভাপতি। তিনি বলেন, চলমান মহামারি থেকে শ্রমিক ও শিল্পকে রক্ষা করতে কারখানার জন্য স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা প্রটোকল প্রণয়ন, টেলিমেডিসিনে মায়া ও কমনওয়েলথের সঙ্গে কর্মসূচি দেওয়াসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে বিজিএমইএ।

ইএআর/এমএএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]