একাদশে ভর্তি ২৫ মে, পরিবর্তন আসছে প্রক্রিয়ায়


প্রকাশিত: ০৩:১৭ পিএম, ২৫ এপ্রিল ২০১৭

চলতি বছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হতে পারে আগামী ২৫ মে। এবার সাড়ে ১৬ লাখ শিক্ষার্থীর একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রমে অংশ নেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আগামীকাল বুধবার (২৬ এপ্রিল) একাদশে ভর্তি নীতিমালা চূড়ান্ত হবে। একই সঙ্গে এ বছর বাড়তি অর্থ আদায় বন্ধে কড়া আইন তৈরি হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গত দুই বছরের ন্যায় এবারও অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম চলবে। গত দু’বছর ভর্তির ক্ষেত্রে নানাভাবে হয়রানির শিকার হয়েছে শিক্ষার্থীরা। অনেক শিক্ষার্থীকে একাধিক কলেজে ভর্তি ফি দিতে হয়েছে। তবে এবার একটিমাত্র কলেজে ১৮৫ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি জমা দিয়ে ভর্তির সুযোগ রাখা হচ্ছে। কলেজ চূড়ান্ত হওয়ার পরই শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানের সব ধরনের ফি জমা দেবে। এছাড়া শিক্ষার্থীরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত যাতে না হয় সেজন্য আইনও করা হচ্ছে।

প্রস্তাবিত নীতিমালা অনুযায়ী, এবার মোট তিনবার মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে। প্রত্যেকবার তালিকায় একজন শিক্ষার্থীর বিপরীতে একটি কলেজের নাম থাকবে। তবে অনলাইন বা এসএমএসে আবেদনকালে একজন শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ পছন্দ করতে পারবে। সেখান থেকে মেধাক্রমে মনোনয়ন দেয়া হবে এবং কলেজ পছন্দ হলে রেজিস্ট্রেশন ফি জমা দিয়ে ভর্তি নিশ্চিত করতে পারবে শিক্ষার্থীরা। তবে একবার তালিকায় জায়গা পেলে ওই শিক্ষার্থীকে অবশ্যই ভর্তি হতে হবে।

অর্থাৎ পছন্দের ১০টি কলেজে মেধা অনুযায়ী যদি কোনো শিক্ষার্থী প্রথমবার তালিকায় স্থান না পায়, তাহলে তাকে দ্বিতীয়বারের তালিকার জন্য আবেদন করতে হবে। তবে কেউ যদি কলেজে ভর্তি হওয়া পর সেখানে পড়তে না চায়, তাহলে তাকে অবশ্যই মাইগ্রেশনের জন্য আবেদন করতে হবে। তবে ভর্তি ফি একবারই নেয়া হবে।

মাইগ্রেশনের প্রথম তালিকায় ঠাঁই না পাওয়া শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় তালিকা প্রকাশ করা হবে। দ্বিতীয় তালিকায় যারা চান্স পাবে, তাদেরকে অবশ্যই ভর্তি হতে হবে। তবে এ তালিকার কেউ কলেজ পরিবর্তন করতে চাইলে তাকে আবারও মাইগ্রেশনের সুযোগ দেয়া হবে এবং মাইগ্রেশনের শিক্ষার্থী দ্বিতীয় তালিকায় ঠাঁই না পেলে তৃতীয় তালিকা প্রকাশ করা হবে।

এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘ভর্তি নীতিমালার একটা খসড়া তৈরি করেছি। সেটি চূড়ান্ত করবেন শিক্ষামন্ত্রী। সেই লক্ষ্যে কাল (বুধবার) বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যানদের উপস্থিতিতে একাদশে ভর্তির নীতিমালা চূড়ান্ত করা হবে।’

তথ্য মতে, তৃতীয় তালিকার পর আর কোনো মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে না। সর্বশেষ তালিকার পর চান্স পাওয়া কলেজের নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে শিক্ষার্থীদের ভর্তি হতে হবে।

এর আগে দ্বিতীয় বা তৃতীয় তালিকায় কোনো শিক্ষার্থী পছন্দের কলেজে চান্স পেলে প্রথমে ভর্তি হওয়া কলেজে দেয়া টাকা ফেরত পেত না। তবে এবার এটা থাকছে না। এবার শিক্ষার্থীদের শুধুমাত্র রেজিস্ট্রেশন ফি নষ্ট হবে। ভর্তি কার্যক্রম সহজ করতে এবার এ পদক্ষেপ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, আগামী ২৫ মে ভর্তি শুরু হলে তা শেষ হবে ৩০ জুন এবং ১ জুলাই ক্লাস শুরু। গত বছর মে-জুন মাসে ভর্তি প্রক্রিয়া শেষে ১০ জুলাই ক্লাস শুরু হয়। কিন্তু অপেক্ষমাণ তালিকার ভর্তি প্রক্রিয়া চলে আগস্ট মাসেও।

এমএইচএম/আরএস/এমএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]