প্রশ্ন ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২৯ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৬:২৪ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

প্রশ্ন ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিতে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

রোববার বিকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এসএসসি পরীক্ষা কমিটির জরুরি বৈঠক শেষে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

নাহিদ বলেন, বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসএসসির প্রশ্ন ফাঁসের খবর পাওয়া যাচ্ছে। সেসব মূল্যায়ণ করতে উচ্চ পর্যায়ের ১১ সদস্যের কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আলমীর হোসেনকে আহ্বায়ক করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, পুলিশ, তিন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে এ কমিটি গঠন করা হবে। তারা ফাঁস হওয়া প্রশ্ন মূল্যায়ন করে প্রমাণ পেলে সারা দেশের পরীক্ষা বাতিল করতে পারবে।

‘আমরা ২০১৫ সালে ঘোষণা দিয়েছিলাম যে, ২০১৭ সালে নৈব্যত্তিকে আরও ১০ নম্বর কমিয়ে আনা হবে’ এমন মন্তব্য করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আগামী বছর থেকে নৈব্যত্তিকের নম্বর কমানো হতে পারে। একটি সেমিনার করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, পরীক্ষার হলে পরীক্ষক-শিক্ষার্থী কেউই কোনো ধরনের ডিভাইজ, মোবাইল আনতে পারবে না। যদি কারো কাছে এসব পাওয়া যায় তাকে গ্রেফতার করা হবে। এছাড়াও ৩০ মিনিট আগে শুধু কেন্দ্রে প্রবেশ নয় পরীক্ষার্থীদের নিজ নিজ আসনে বসার নির্দেশ দেন তিনি।

নাহিদ বলেন, সরকারকে বিপাকে ফেলতে কেউ কেউ এসব নোংরা কাজে যুক্ত হচ্ছেন। তাদের কেউই রেহাই পাবে না। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহ বিভিন্ন সংস্থাকে আবারো তাগাদা দেয়া হয়েছে।

বৈঠকে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসেন, কারিগরি ও মাদসারা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর হোসেন, তিনি বোর্ড চেয়ারম্যানসহ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এমএইচএম/এএইচ/আইআই/জেআইএম