পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ-পদোন্নতির নীতিমালা চূড়ান্ত

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৩ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিন্ন পদ্ধতিতে শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতি নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে। রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে এ সভায় নীতিমালাটি চূড়ান্ত করা হয়। এতে নতুন করে বাংলাদেশি অথবা বিদেশি শিক্ষক চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়ার বিষয়টি যুক্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

শিক্ষামন্ত্রীর সভাপতিত্বে সভায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসেন, অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়) আব্দুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহিদুল্লাহ, ইউজিসির মেম্বার (বিশ্ববিদ্যালয়) অধ্যাপক দিল আফরোজা বেগম, ইউজিসির পরিচালক (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়) মো. কামাল উপস্থিত ছিলেন।

সভা সূত্রে জানা গেছে, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিন্ন নীতিমালাটি সভায় প্রজেক্টরের মাধ্যমে ইউজিসির পক্ষ থেকে উপস্থাপন করা হয়। খসড়া নীতিমালায় শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে যোগ্যতা হিসেবে প্রভাষক পদে নিয়োগের জন্য উচ্চতর ডিগ্রিতে সিজিপিএ-৩ দশমিক ৫ ও চারুকলা বিষয়ে ৩ দশমিক ২৫ প্রস্তাব করা হয়েছে। নিয়োগের জন্য লিখিত-মৌখিক পরীক্ষা আয়োজনের কথা খসড়া নীতিমালায় বলা হয়। তবে প্রভাষকের পরের পদগুলোতে নিয়োগের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আলোচনা সাপেক্ষে নিয়োগ দিতে পাববে।

সভায় উপস্থিত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আব্দুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, অভিন্ন নীতিমালা শিক্ষামন্ত্রী অনুমোদন দিয়েছেন। তবে একটি বিষয় যুক্ত করা বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অনেকে বিদেশের বিভিন্ন দেশে বিশ্ববিদ্যালয়ে সুনামধারী শিক্ষক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। তাদের প্রয়োজনভিত্তিক বিভিন্ন অনুষদে দেশে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া যাবে। বিদেশে তারা যে বেতন পান সেই অর্থে বিশ্ববিদ্যালয় ফান্ড থেকে পরিশোধ করার বিষয়টি যুক্ত করতে শিক্ষামন্ত্রী প্রস্তাব করেন।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, খসড়া নীতিমালাটি চূড়ান্ত করা হয়েছে। নতুন করে একটি বিষয় যুক্ত করে এটি প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের জন্য কেবিনেট অথবা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর ইউজিসি থেকে একটি প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন করা হবে।

এমএইচএম/এনএফ/জেআইএম