৪২তম বিশেষ বিসিএসে নিয়োগ হবে ২ হাজার চিকিৎসক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৪৩ পিএম, ২৮ জুলাই ২০২০

সরকারি চিকিৎসক নিয়োগে আরও একটি বিশেষ বিসিএস পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তুতি শুরু করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। ৪২তম বিসিএসের মাধ্যমে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিতে এ পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। ইতোমধ্যে কমিশনের সভা করে বিধিমালা সংশোধন করে খসড়া অনুমোদন করা হয়েছে বলে পিএসসি থেকে জানা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পিএসসির চেয়ারম্যান ডা. মোহাম্মদ সাদিক মঙ্গলবার জাগো নিউজকে বলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে চিকিৎসক নিয়োগে নতুন করে চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে। এ চিঠি আমরা পেয়েছি। চাহিদাপত্র পাওয়ার পর গতকাল কমিশনের সভা করে বিশেষ বিসিএসের আয়োজনের জন্য চলমান বিধিমালা সংশোধন করে একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। কমিশনের সদস্যরা সেটি অনুমোদন দিয়েছে। সেটি দ্রুত প্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। সেখান থেকে অনুমোদন দেয়া হলে চিকিৎসক নিয়োগে ৪২তম বিশেষ বিসিএস পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। পরীক্ষা শুরু করতে পিএসসি থেকে দ্রুত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলেও জানান চেয়ারম্যান।

পিএসসি থেকে জানা গেছে, গত ১৩ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের সুপারিশ পিএসসিতে পাঠানো হয়। এ চাহিদাপত্র পাওয়ার পর গতকাল পিএসসি কমিশনের সভা ডাকা হয়।

এর আগে ২০১৮ সালের এপ্রিলে ৩৯তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। আর ২০১৯ সালের এপ্রিলে তার ফল প্রকাশ করা হয়। ৩৯তম ব্যাচে উত্তীর্ণদের ভেতর থেকে ৪ হাজার ৭৯২ জন চিকিৎসককে নিয়োগের সুপারিশ করে পিএসসি। ওই বছরেরই নভেম্বর মাসে ৪ হাজার ৪৪৩ জনকে স্বাস্থ্য ক্যাডারে নিয়োগ দিয়ে আদেশ জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। একই বিসিএসে উত্তীর্ণ ৮ হাজার ৩৬০ জনকে নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য রাখা হয়। এর মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হলে সেই ৮ হাজার ৩৬০ জনের মধ্য থেকেই গত মে মাসে ২ হাজার জনকে নিয়োগ দেয়া হয়। এই নন-ক্যাডারের তালিকায় আরও ৬ হাজার ৩৬০ জন চিকিৎসক অপেক্ষায় আছেন।

এমএইচএম/এমএসএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]